কর্কে আইরিশ তিন ভাইয়ের মৃত‌্যুতে মানুষের শোক

0
210

কর্কে আইরিশ তিন ভাইয়ের মৃত‌্যুতে মানুষের শোক। তারা স্থানীয়ভাবে প্যাট্রিক (60), উইলিয়াম (66) এবং জন (59) হেনেসি নামে পরিচিত ছিল।

খুন এবং আত্মহত্যার মধ্যে দিয়ে তিন ভাইয়ের লাশ পাওয়া যাওয়ার পরে কাউন্টি কর্কের কমিউনিটির সকলে হতবাক।

পুলিশের এক অপারেশনের পরে তিনজনকেই মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে।

এই ভয়াবহ ঘটনাটি গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১১.৪০ মিনিটে ঘটে। পুলিশ খবর পেয়ে কর্কের কার্গারোম শহরের একটি বিচ্ছিন্ন এলাকার খামার বাড়িতে গিয়ে অবস্থান নেয়, এই খামার বাড়িটি – উত্তর কর্ক শহড় ও শমিচেলস্টাউন থেকে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।

পুলিশ প্রথমে একজনের মৃতদেহ পায় যার মাথায় আঘাতের চিহ্ন ছিল যার কারণে মারা গিয়েছিলেন বলে ধারনা করা হচ্ছে। তারা তত্ক্ষণাত্ জায়গাটি সিল করে সশস্ত্র পুলিশ ইউনিটে ডেকে আনে।

এরপরে সশস্ত্র পুলিশ ইউনিট একটি আউটহাউসে প্রবেশ করে যেখানে তারা দ্বিতীয় ব্যক্তিকে আবিষ্কার করে এবং তার মাথায়ও ভয়াবহ আঘাতের চিহ্ন ছিল। প্রাথমিকভাবে, এই দুই ব‌্যাক্তিদের প্যাট্রিক এবং জন হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছিল।

পুলিশ ইউনিট দ্রুততার সাথে তৃতীয় ব‌্যাক্তি উইলি নামে পরিচিত উইলিয়ামের সন্ধানের জন্য পুলিশ সার্স বাহিনীর মাধ‌্যমে দেশব‌্যাপী এক জরুরি সতর্কতা জারি করে – পুলিশ যাকে সন্দেহ করছিল যে তিনি নিখোঁজ আছেন। পুলিশ একটি লাল টয়োটা করলা ভ্যানের সন্ধানও করছিল। তবে তদন্তকারীরা পরে বুঝতে পেরেছিল যে নিখোঁজ ভাই হলেন জন এবং উইলিয়াম ঘটনাস্থলে মারা গিয়েছিলেন।

ভ্যান গাড়িটি সন্ধানের জন্য গণমাধ্যমে একটি আবেদন প্রচারে পর আজ শুক্রবার সকাল দশটার পরে পুলিশ বাড়ি থেকে অল্প দূরে কিল্ল্লুইগের একটি খামার পার্কে ভ্যান গাড়িটি খুজে পায়।

শুক্রবার সকালে খুজে পাওয়া ভ্যান গাড়িটির আশেপাশের এলাকায় পুলিশ একটি বিশাল অনুসন্ধান অভিযান চালায় যার ফলশ্রুতি প্রায় দুপুর ১ টার দিকে পুলিশ ড্রয়ের(Drough) কাছে ফানচাঁই(Funcheon) নদীতে জনের মরদেহটি আবিষ্কার করতে সক্ষম হয়।

সূত্র বলেছে যে পুলিশ সন্দেহ করছে প্যাট্রিক এবং উইলিয়ামকে একটি কুড়াল দিয়ে হত‌্যা করা হয়েছিল এবং জন পানিতে ডুবে মারা গিয়েছে।

গোয়েন্দারা বিশ্বাস করেন যে এটি একটি হত্যাকাণ্ড এবং একই সাথে আত্মহত্যার ঘটনাও দৃশ‌্যমান। একটি তত্ত্ব অনুসন্ধান করে ধারণা করা হচ্ছে যে ভাইরা তাদের ৫০ একরের জমির মধ‌্য থেকে একটি ছয় একর সম্পত্তির মালিকানা নিয়ে দন্দে জড়িয়ে পরে ছিল।

”ধারণা করা হচ্ছে, জমি বিক্রয় নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে তাদের মধ‌্যে তর্ক বিতর্ক হয়েছিল এবং গবাদি পশু বিক্রয় বা পরিচালনা নিয়ে পরিবারে এই বিরোধ আরও বেড়ে গিয়েছিল। ”

পুলিশের এই বিশাল অপারেশনটিতে কর্ক শহর থেকে পুলিশের সশস্ত্র ইউনিট এবং ফর্ময় (Fermoy) ভিত্তিক নর্থ জেনারেল কর্ক অঞ্চল থেকে গোয়েন্দাসহ পুড়ো অঞ্চলজুড়ে বিপুল সংখ্যক পুলিশ অংশ নেয়।

এখানে প্রচুর সংখ্যক ইউনিফর্ম পুলিশের পাশাপাশি Dog ইউনিট এবং পুলিশের warer ইউনিট উপস্থিত ছিল।

শুক্রবার সন্ধ্যায় বেশ কয়েকটি স্থানে ফরেনসিক পরীক্ষা নিড়িক্ষা চলমান ছিল।

প্রাথমিক ভাবে আবিষ্কার করা হয় যে খামারবাড়িটি যে স্থানে করা হয়েছিল সেটি একটি সরু, বাঁকানো লেনওয়ের শেষে। ঘটনাস্থলের কাছে কয়েকটি বাড়ি রয়েছে।

খামারটি ঘিরে রয়েছে জলাবদ্ধ খামার জমি, ছোট উচু নিচু পাহাড়ের পাশ দিয়ে একটি ছোট স্রোতের ঝরণা দ্বরা নেমে চলছে গেছে।

এটি ধারনা করা হচ্ছে যে আত্মীয়স্বজন সহ বেশ কয়েকজন লোক গত রাতে এই ঘটনার আগেই পুলিশের সাথে যোগাযোগ করে এবং মৃত এই তিন ব্যক্তির নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে।

প্রতিবেশীরা ঘটনা সম্পর্কে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে অস্বীকার করে তবে এক জন স্থানীয় ব‌্যাক্তি জানিয়েছেন যে তাদের ভাইদের মধ্যে একজনের সাথে টায়ারের ব্যবসায় কাজ করার কারনে পরিচিত ছিলেন।

এটা জানা গেছে যে উইলি জমিতে কৃষি কাজ করতেন এবং অন্য দুই ভাইয়ের একই জমিতে প্লট ছিল, জানা গিয়েছে সাম্প্রতিক সময়ে তারা কেবল মুদি দোকানের মালাল সংগ্রহ ও ডেলিভারী করতেন ।

স্থানীয় এক সুত্র থেকে জানা যায় যে প্যাট্রিক বিবাহিত ছিলেন এবং তাদের সন্তান ছিল, যার মধ্যে ২০১২ সালে একটি সন্তান মারা যায়।

“তারা পুরানো ধাঁচের মানুষের মত ছিল এবং নিরিবিলি কৃষিকাজ করত। আসপাশের লোকজন জানতে পারে যে সাম্প্রতিক সময়ে তাদের মধ‌্যে জমির বিষয়ে বিরোধ দেখা দেয়।

তথ‌্যসুত্র:

Shock in rural Cork community as three brothers found dead https://jrnl.ie/5366658

Facebook Comments Box