২০২০ সালের সাধারণ নির্বাচন সম্পর্কে কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদি

0
403

মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যে ভোটাররা সাধারণ নির্বাচনের পক্ষে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

সাধারণ নির্বাচনে ভোট দেওয়ার জন্য শনিবার ৮ ফেব্রুয়ারি সারাদেশে স্কুল ও কমিউনিটি সেন্টারগুলোতে ভোটাররা পদচারণা করবেন। ৩৯ টি আসনে ৫১৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

২০১৬ সালে সর্বশেষ সংসদ গঠিত হওয়ার পর থেকে জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে ৩৩তম সংসদে  ১৬০ টি আসন থাকবে, যা বিদায়ী সংসদ নির্বাচনের চেয়ে দুটি বেশি।

প্রতিটি নির্বাচন কেন্দ্রে একটি নির্দিষ্ট সংখ্যক আসন রয়েছে যা পূরণ করতে হবে এই নির্বাচনের মাধ্যমে। সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের জন্য একটি দলকে ৮০টি আসন জিততে হবে।

আয়ারল্যান্ডে সংসদ নির্বাচনের রীতিনীতি কি?

ফিনে গেইল ৪৭টি আসন নিয়ে প্রচারে নেমেছে। ফিনা ফলের সান কমহায়ার বাদে ৪৫, শিন ফিনেই রয়েছে ২২টি, লেবার ৭টি এবং সলিডারিটি পিপলসের বিফোর প্রফিটের ছয়টি আসন রয়েছে। স্বতন্ত্রীদের আছে ২২টি আসন, পরিবর্তনের জন্য ইন্ডিপেন্ডেন্টসের ১টি, গ্রীন ৩টি, সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটস ২টি এবং অন্তুর একটি আসন রয়েছে।

কোনও দলই সামগ্রিক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের প্রত্যাশা করছেনা যার অর্থ জোটের ৮০টি আসন অর্জনের জন্য কোয়ালিশনের আলোচনা অনিবার্য।

নির্বাচনের পরে সরকার গঠনে কিছুটা সময় লাগবে বলে মনে করা হচ্ছে। ২০১৬ সালের নির্বাচনের পরে সরকার গঠনে ৭০দিন সময় লেগেছিল।

২০১৬ সালের ১৬০ এর তুলনায় এই নির্বাচনে ১৬২ জন মহিলা প্রার্থী রয়েছেন যা একটি রেকর্ড। এর অর্থ হলো ইতিহাসে প্রথমবারের মতো দেশজুড়ে প্রতিটি আসনে কমপক্ষে একজন মহিলা প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

ভোটারদের জন্য আরামের বিষয় হচ্ছে, ১৯১৮ সালের পরে এই প্রথমবারের মতো ছুটির দিনে অর্থাৎ শনিবার ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

ফাইন গেইল নেতা লিও ভারাদকার বলেন যে, তিনি ভোট দিতে চাইছেন এমন বাবা-মায়ের উপর থেকে কিছুটা চাপ কমাতে চান এবং যারা তাদের ভোটকেন্দ্র থেকে দূরে বাস করেন তারা যাতে ভালোভাবে ভোট দিতে পারেন।

ভোট দেওয়ার পদ্ধতি।

আয়ারল্যান্ড একক স্থানান্তরযোগ্য ভোটের সাথে আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব নামে একটি নির্বাচনী ব্যবস্থা ব্যবহার করে। এটি জটিল মনে হলেও, আসলে ততটা জটিল না। ভোটাররা পছন্দ অনুযায়ী তাদের ব্যালট কার্ড পর্যায়ক্রমে চিহ্নিত করেন, যার অর্থ তাদের প্রথম পছন্দের বিপরীতে এক নাম্বার, তাদের দ্বিতীয় পছন্দের পাশে দুই নাম্বার এবং বাকিগুলোও সেই রূপে।

প্রার্থীগণ যদি নির্দিষ্ট পরিমান ভোট পেয়ে নির্বাচিত না হতে পারেন তাহলে সর্বনিন্ম সংখ্যক ভোট পাওয়া প্রার্থীর ভোট ট্রান্সফার হবে। যতক্ষণ পর্যন্ত নির্দিষ্ট পরিমান সংসদ সদস্য কনফার্ম না হবে এই ট্রান্সফারেবল ভোট ততক্ষন পর্যন্ত এই প্রক্রিয়া চলমান থাকবে। যদি কোন একক প্রার্থী পর্যাপ্ত পরিমান ভোট পান তাহলে তিনি ট্রান্সফারেবল ভোট ছাড়াই চুড়ান্ত সদস্য হিসেবে মনোনীত হবেন। দলীয় প্রার্থীদের মধ্যে ভোটের স্থানান্তর প্রায়শই প্রার্থী নির্বাচিত হওয়ার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

১৯৫৯ এবং ১৯৬৮ সালে দুটি রেফারেন্ডাম বা গণভোট হয়েছিলো যেখানে এই সিস্টেম বাদ দিয়ে একজন প্রার্থীকে নির্বাচিত করার প্রস্তাব এসেছিলো। তবে উভয় ক্ষেত্রেই এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করা হয়।

আপনি কিভাবে আপনার ভোট দিবেন?

ভোট দেওয়ার জন্য আপনার নিবন্ধন করতে হবে, অর্থাত আপনার নাম ইলেক্টর্স এর রেজিস্টারে থাকতে হবে। কোনও ভোটার রেজিস্টারে থাকলে তারা তাদের পোলিং কার্ড গ্রহণ করবেন যেখানে তাদের নিকটতম ভোটকেন্দ্র সম্পর্কিত তথ্য অন্তর্ভুক্ত থাকবে। নির্বাচনের দিন সকাল ৭টা থেকে রাত দশটা পর্যন্ত ভোটকেন্দ্রগুলি খোলা থাকে। ভোটাররা তাদের সাথে পোলিং স্টেশনে ফটো আইডি আনতে হবে। ভোটার দিন আপনার স্বজন বন্ধুবান্ধব কে নিয়ে আপনার ভোটাধিকার প্রয়োগ করুন। মাইগ্রান্টদের জন্য ভোট দেয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনারা জেনেশুনে প্রার্থী পছন্দ করবেন যেই দোল মাইগ্রান্টদের অধিকার ও উন্নত আয়ারল্যান্ডের প্রতিশ্রুতি দিবে সেই দলকে আপনার মূল্যবান ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করুন। প্রত্যেকটি দলের অতীত ইতিহাস সম্পর্কে কিছুটা জানাশুনা থাকলে এক্ষেত্রে দল নির্বাচিত করতে সুবিধা হবে।

Facebook Comments Box

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here