ভারতে মুসলিমবিদ্বেষ উসকে দিলেন কুস্তিগীর ববিতা

0
388

করোনাভাইরাস ছড়ানোর জন্য মুসলমানদের দায়ী করে সামাজিকমাধ্যমে পোস্ট দিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছেন ভারতের আন্তর্জাতিক পুরস্কারজয়ী ক্রীড়াবিদ ববিতা ফোগাত।

টুইটারে নারী কুস্তিগীর ববিতাকে নিষিদ্ধের আহ্বান জানিয়ে হ্যাশট্যাগ পোস্টের বন্যা বয়ে যাচ্ছে। মুসলমানদের অবমাননা করে পোস্ট দিয়ে তিনি বলেন, ভারতে ভাইরাসের চেয়েও বড় সমস্যা মুসলমানরা।-খবর বিবিসি ও এনডিটিভির

এর একদিন আগে বলিউড তারকা কঙ্গনা রানাউতের বোন রাঙ্গলি চন্দনের টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ধর্মনিরপেক্ষ গণমাধ্যম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে সহিংসতার পক্ষে সাফাই গেয়েছেন তিনি।

তার অভিযোগ, মুসলমানরা চিকিৎসকদের ওপর হামলা ও হত্যা করেছেন।

ভারতে স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে, সত্য। কিন্তু কোন হামলার দায় তিনি মুসলমানদের ওপর চাপাচ্ছেন, তা উল্লেখ করেননি কঙ্গনার বোন।

অনলাইনে কিছু ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে, যাতে দেখা যাচ্ছে মুসলমানরা স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর চড়াও হচ্ছেন। কিন্তু সেসব ভিডিওর কোনো সত্যতা মেলেনি।

ক্ষমতাসীন হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপি নেতা ববিতা ফোগাত টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করা হয়নি। কিন্তু বিদ্বেষের ছড়াছড়ি দেখে ক্লান্ত অনেকেই তার অ্যাকাউন্ট বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন।

যদিও তার সমর্থনেও কথা বলতে দেখা গেছে অনেককে। কমনওয়েলথ স্বর্ণজয়ী ববিতা ভারতীয় জনতা পার্টিতে যোগ দিয়েছেন।

দেশটিতে করোনাভাইরাস বিস্তারের পর টুইটারে ইসলামবিদ্বেষী প্রচার বাড়ছে। তাবলিগ জামাতের একটি মারকাজকে কোভিড-১৯ বিস্তারের কেন্দ্রস্থল বলে দাবি করছে ভারতীয় পুলিশ।

তাবলিগের ভারতীয় প্রধানের বিরুদ্ধে মামলাও হয়েছে। যদিও তাবলিগ-জামাত বলছে, তারা ভুল কিছু করেনি।

এই ঘটনার পর ভারতে করোনার বিস্তারের জন্য মুসলমানদের দায়ী করা হচ্ছে। মুসলমান দোকানি ও খুচরা বিক্রেতাদের অভিযোগ, লোকজন তাদের সঙ্গে ব্যবসা করছেন না। তাদের তাড়িয়ে দেয়া হচ্ছে।

তবে খারাপ কিছু করেননি বলে জানিয়ে ববিতা ফাগোত বলছেন, আমি জায়রা ওয়াসিম না। আমরাকে ভীত করা যাবে না। আমি সবসময় দেশের জন্য লড়ছি। আমি ভুল কিছু লিখিনি।

Facebook Comments Box

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here