নতুন ভ্যারিয়েন্টের ভাইরাসের বিরুদ্ধেও ফাইজার/বায়োন্টেকের ভ্যাকসিন কার্যকর

0
279

নতুন দুটি ধরনের করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ফাইজার-বায়োন্টেকের ভ্যাকসিন কার্যকর বলে প্রমাণ পেয়েছে গভেষকরা।

অনেক বেশি সংক্রামক নতুন ধরন দুটি পাওয়া গেছে যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ আফ্রিকায়। এ কারণেই এদের বিরুদ্ধে ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা কেমন হবে তা নিয়ে সন্দেহ ছিল।

ফাইজারের কার্যকারিতা পরীক্ষার জন্য গবেষকরা ভাইরাসটির দুটি ধরন তৈরি করেন। একটি ধরনে নতুন মিউটেশনটি ছিল, অপরটিতে ছিল না। এরপর সেগুলোকে ২০ জন রোগীর রক্ত নমুনার সঙ্গে মিশ্রিত করা হয় যাদেরকে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের সময় ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছিল।

ফলাফলে দেখা যায়, ভ্যাকসিন নেয়া ব্যক্তিরা নতুন ধরনটির বিরুদ্ধেও রোগ প্রতিরোধে সক্ষম।

ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাসের এই গবেষণায় যে মিউটেশন নিয়ে কাজ করা হয়েছে তার নাম এন৫০১ওয়াই, যা করোনাভাইরাসের দুটি ধরনেই পাওয়া গেছে। ভ্যাকসিন এই ধরন দুটির বিরুদ্ধেও কার্যকর হবে এমন ধারণাই করা হচ্ছিল, যদিও গবেষকরা প্রমাণ খুঁজছিলেন।

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের পর যে অনেকগুলো ধরন তৈরি হয়েছে, এই ধরন দুটি তাদের মধ্যে অন্যতম। তাই ফাইজারের কার্যকারিতা যেমন খুশির খবর, তেমনি ভাইরাসের বিরুদ্ধে ভ্যাকসিন কীভাবে কাজ করবে সে ব্যাপারে নির্দিষ্ট বৈজ্ঞানিক প্রমাণ এখনো পাওয়া যায়নি।

নতুন ধরনটিতে একাধিক মিউটেশন রয়েছে তাই এদের সম্মিলিত প্রভাব রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে ভেঙ্গে দিতেও পারে। এ প্রসঙ্গে ক্যামব্রিজ ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক রাভি গুপ্তা বলেন, ‘ব্রিটেনের আটটি ধরনের একটি হল এই মিউটেশন এবং এককভাবে এটি উল্লেখযোগ্য প্রভাব রাখবে এমনটা আশাও করা হচ্ছিল না।’

Facebook Comments Box