তুরস্ককে ছাড়া কোন শান্তিচুক্তি চায় না আজারবাইজান

0
257

ইউরোপের মুসলিম রাষ্ট্র তুরস্ককে ছাড়া শত্রুদের সঙ্গে কোনো ধরনের শান্তি প্রক্রিয়া না যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে এশিয়ার ইসলামিক রাষ্ট্র আজারবাইজান। প্রতিবেশী আর্মেনিয়ার সঙ্গে যুদ্ধরত দেশটির প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিজেভ বলেছেন, নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে যে কোনো শান্তি প্রক্রিয়ায় তুরস্ককে যুক্ত করতে হবে।

বিশ্লেষকদের মতে, নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে যখন আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে সংঘর্ষ ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে তখনই প্রেসিডেন্ট আলিজেভ ঘোষণাটি দিলেন।

তিনি বলেছেন, শান্তি প্রক্রিয়া অবশ্যই শুরু করতে হবে। চিরদিনের জন্য যুদ্ধ চলতে পারে না। সেক্ষেত্রে শান্তি আলোচনা যত তাড়াতাড়ি শুরু করা যায় ততই ভালো। কিন্তু সে আলোচনায় অবশ্যই তুরস্ককে রাখতেই হবে।

সোমবার (৫ অক্টোবর) তুরস্কের টিআরটি হাবের গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট। সেখানে তিনি বলেন, তুরস্ক হচ্ছে আঞ্চলিক একটি বড় উদীয়মান শক্তি এবং দক্ষিণ ককেশাস অঞ্চলের দেশ। এ সময় আঙ্কারার অবস্থান অন্যদের প্রতি সতর্কবার্তা বলেও মন্তব্য করেন আলিজেভ।

সাক্ষাৎকারে আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট বলেন, তার দেশের সেনারা কারাবাখের বেশ কিছু এলাকা পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে। এ অবস্থায় যুদ্ধবিরতি শুধুমাত্র তখনই সম্ভব হবে যখন আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে বাকুকে এই নিশ্চয়তা দেওয়া হবে যে, নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল থেকে ইয়েরেভান সম্পূর্ণভাবে সেনা প্রত্যাহার করে নেবে।

ইলহাম আলিজেভ বলেন, আমরা অন্য কোনো দেশের ভূমির প্রতি নজর দেইনি কিন্তু আমাদের ভূখণ্ড আমাদের হাতেই থাকতে হবে।

এর আগে রবিবার (৪ অক্টোবর) জাতির উদ্দেশ্যে টেলিভিশনে দেওয়া ভাষণে আলিজেভ বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছিলেন। সেখানে তিনি সেনা প্রত্যাহারের ব্যাপারে আর্মেনিয়া সুস্পষ্ট সময়সীমা ঘোষণা না করা পর্যন্ত আজারবাইজান কোনো ধরনের যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে পৌঁছাবে না বলে ঘোষণা দেন।

Facebook Comments Box