মুনাসিব হোসাইনের অসামান্য কৃতিত্ব ও ট্রিনিটি কলেজে ফার্মেসিতে ভর্তি

0
554
Munasib Hossain

আব্দুর রাহিম ভূঁইয়াঃ

মুনাসিব হোসাইন (রিশাত) এ বছর লিভিং সার্টিফিকেট ২০২০ পরীক্ষায় সফলতার সাথে উত্তীর্ণ হন। তিনি স্কুল মক টেস্টেও প্রথম হয়ে উত্তীর্ণ হয়েছিলেন যেই ফলাফলের ভিত্তিতে এ বছর লিভিং সার্টিফিকেটের ফলাফল নির্ধারিত হয়। তার বয়স ১৭। তিনি ট্রিনিটি কলেজে ফার্মেসী বিভাগে L-9 এ ভর্তি হয়েছেন। এই বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে ফার্মেসি বিভাগে ভর্তি হতে নূন্যতম ৫৯০ মার্ক এর প্রয়োজন ছিল।

তার পিতা ডাঃ মুসাব্বির হোসাইন ও মাতা ডাঃ রিতা আওয়াল। ফার্মেসিতে ভর্তি হতে পেরে মুনাসিব হোসাইন ও তার পরিবার অত্যন্ত আনন্দিত ও গর্বিত। তার এই সফলতায় কমিউনিটির ব্যাক্তিবর্গ তাকে অভিন্দন জানায়।

মুনাসিব হোসাইন তার পরিবার সহ আয়ারল্যান্ডে ২০১৭ সালের জুলাইয়ে আসেন। এখানে তিনি Le Chéile Secondary School, Tyrrelstown, Dublin এ দশম শ্রেণী (Transition Year) এ ভর্তি হয়েছিলেন।

আয়ারল্যান্ডে আসার পূর্বে তিনি স্বপরিবারে সৌদি আরবে American International School, মদীনাহ মনোয়ারায় পড়াশুনা করেন। সেখানে তিনি দ্বিতীয় শ্রেণী থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত অধ্যায়ন করেন।

ছোটবেলায় তিনি নানার সান্নিধ্যে কাটান এবং তার নানার কাছ থেকে অনুপ্রেরণা পান। তার নানা মরহুম ডাঃ অধ্যাপক M A Awal যিনি প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান, সার্জারী বিভাগ, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। তার দাদা ইনায়েত হোসাইন, প্রাক্তন প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা, সাইন্স ল্যাবরেটরি, ঢাকা। তার দাদী মাহমুদা বেগম, অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা, ধানমন্ডি সরকারি গার্লস স্কুল, ঢাকা।

তার পিতা ডাঃ মুসাব্বির হোসাইন, মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, Portiuncula University Hospital, Ballinasloe, Co – Galway এবং মাতা ডাঃ রিতা আওয়াল, গাইনি বিশেষজ্ঞ, গলওয়ে বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল, গলওয়ে।

মুনাসিব হোসাইনের এই সফলতায় আইরিশ বাংলা টাইমসের পক্ষ থেকে অভিনন্দন ও তার উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করছি।

Facebook Comments Box