বেলফাস্টে বাসে আগুন, পুলিশের ওপর হামলা; যুক্তরাাজ্যের উদ্বেগ

0
418

নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডের বেলফাস্টে একদল বিক্ষোভকারী ছিনতাই করা একটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি পুলিশ সদস্যদের ওপর পাথর ছুড়ে মেরেছে বলে জানিয়েছে সেখানকার পুলিশ।

ব্রেক্সিটের কারণে যুক্তরাজ্যের বাকি অংশের সঙ্গে বাণিজ্যে যেসব নতুন বাধার সৃষ্টি হয়েছে তা নিয়ে বাড়তে থাকা হতাশার মধ্যে গত সপ্তাহ থেকে নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডের বিভিন্ন এলাকায় রাতে  ধারাবাহিকভাবে এ ধরনের সহিংসতা দেখা যাচ্ছে।

গত কয়েকদিনের সহিংসতায় কয়েক ডজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

বিক্ষোভকারীদেরকে গাড়ি জ্বালিয়ে দিতে এবং পুলিশের দিকে পেট্রল বোমাও ছুড়ে মারতে দেখা গেছে।

নর্দার্ন আয়ারাল্যান্ডের এ সহিংসতায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

“সেখানে সহিংসতার চিত্র দেখে আমি খুবই উদ্বিগ্ন। মতপার্থক্যের সমাধান হয় আলোচনার মাধ্যমে, সহিংসতা বা অপরাধের মাধ্যমে নয়,” টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে এমনটাই লিখেছেন তিনি।

নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডের ব্রিটিশপন্থি দল ডেমোক্রেটিক ইউনিয়নিস্ট পার্টি (ডিইউপি) বলছে, ব্রেক্সিটের কারণে সৃষ্ট বাণিজ্য বাধার পাশাপাশি গত বছর কোভিড-১৯ এর বিধিনিষেধ অমান্য করে হওয়া বড় একটি অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানের জন্য আইরিশ জাতীয়তাবাদী দল শিন ফেইনের বিচার না করার পুলিশি সিদ্ধান্তও জনমনে অসন্তোষ সৃষ্টি করেছে।

অন্যদিকে শিন ফেনের ভাষ্য, নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড ও যুক্তরাজ্যের অন্য অংশের মধ্যে বাণিজ্য সংক্রান্ত নতুন নিয়মকানুনের বিরোধিতা এবং আঞ্চলিক পুলিশ প্রধানের পদত্যাগ চেয়ে ডিইউপি-ই উত্তেজনা উসকে দিচ্ছে।

বুধবার বাসে আগুন ও পুলিশের ওপর হামলার ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম বেলফাস্টের শেনকিল সড়কের কাছে; এই সড়কের কাছেই তথাকথিত ‘শান্তির দেয়ালের’ অবস্থান, যা যুক্তরাজ্যপন্থিদেরকে ফলস সড়কে থাকা আইরিশ জাতীয়তাবাদীদের ঘাঁটি থেকে আলাদা করেছে। বুধবার ফলস সড়কেও যুবকদের জড়ো হতে দেখা গেছে, তবে সেখানে সহিংসতার কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

ডিইউপি ও শিন ফেইন- দুটি দলই এদিনের  সহিংসতা, বিশেষ করে বাস ছিনতাই ও সংবাদমাধ্যম বেলফাস্ট টেলিগ্রাফের আলোকচিত্র সাংবাদিকের ওপর হামলার নিন্দা জানিয়েছে।

“এ ধরনের কর্মকাণ্ড ইউনিয়নবাদ কিংবা আনুগত্য কোনোটিরই প্রতিনিধিত্ব করে না। এরা নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডকে বিব্রত করেছে,” বলেছেন ডিইউপি নেতা আরলেন ফস্টার।

আরো বিস্তারিত জানতে নিচের লিঙ্কটিতে ক্লিক করুন।
Peace wall violence in Belfast ‘at a scale we have not seen in recent years’ https://jrnl.ie/5403241

Facebook Comments Box