পম্পেতে দুই হাজার বছরের পুরোনো ফাস্ট ফুডের দোকানের সন্ধান

0
319
২০০০ বছরের পুরোনো ফাস্ট ফুডের দোকান

৭৯ খ্রিষ্টাব্দে ইতালির প্রাচীন শহর পম্পেইয়ের ভিসুভিয়াস পর্বতের আগ্নেয়গিরির উত্তপ্ত লাভার নিচে চাপা পড়ে পম্পেই নগরী। এতে ২ হাজার থেকে ১৫ হাজার মানুষ মারা যায়। সেখানে ছাইয়ের স্তূপ থেকে দুই হাজার বছরের পুরোনো ফাস্ট ফুডের দোকানের সন্ধান পায় প্রত্নতাত্ত্বিকেরা। এই দোকান থেকে প্রাচীন রোমানদের খাদ্যাভ্যাস সম্পর্কে নতুন তথ্য পাওয়া গেছে।দোকানের স্ন্যাক্সের কাউন্টারটি পলিক্রম নকশায় সজ্জিত। আগ্নেয়গিরির ছাইয়ে ঢাকা ছিল এ দোকান।

ফাস্ট ফুডের ওই দোকানগুলোকে বলা হতো ‘থার্মোপোলিয়াম’। গ্রিক শব্দ ‘থার্মোর’ অর্থ গরম আর ‘পোলেও’ শব্দের অর্থ বিক্রি। অর্থাৎ গরম জিনিস বিক্রির জায়গা থার্মোপোলিয়াম। পম্পেই নগরের ওয়েডিং স্ট্রিট ও অ্যালে অব ব্যালকোনিজের নামের দুই এলাকার মাঝামাঝি জায়গায় ছিল এই গরম খাবারের দোকানের অবস্থান।

প্রত্নতাত্ত্বিকদের দল ফাস্ট ফুডের ওই দোকানে হাঁস, শূকর, ছাগলের হাড়ের টুকরো খুঁজে পেয়েছেন। মাটির পাত্রে পেয়েছেন মাছ ও শামুক। এগুলোর মধ্যে কিছু উপাদান রোমান যুগের খাবার ‘পেলার’ মতো একসঙ্গে রান্না করা হয়েছিল।

ফাস্ট ফুডের দোকানটির কাছে একটি ঝরনা পাওয়া গেছে। এ ছাড়া ৫০ বছরের এক ব্যক্তির দেহাবশেষ ও শিশুর বিছানা পাওয়া গেছে। সম্ভবত দোকানের পেছনে বয়স্ক কোনো ব্যক্তি বসবাস করতেন এবং আরেকজন মানুষেরও দেহাবশেষ পাওয়া গেছে। অগ্ন্যুৎপাত শুরুর পর তারা মারা যান।

পম্পেই ইতালির দ্বিতীয় পর্যটন এলাকা। গত বছর ৪০ লাখ পর্যটক সেখানে যান। এটি রোমান সাম্রাজ্যের অন্যতম ধনী এলাকা ছিল। অগ্ন্যুৎপাতের ছাইয়ের স্তূপের নিচে চাপা পড়ে অনেক ভবন ও জিনিস।

Facebook Comments Box