নতুন সংযোজিত ট্যাক্স ক্রেডিট এবং ট্যাক্স রিলিফ – ক্লেইম করতে ভুলবেন না

0
205

শুধুমাত্র করোনাকালীন সময়ের জন্য সরকার নতুন ধরনের ট্যাক্স রিলিফ এবং ট্যাক্স ক্রেডিট এর সংযোজন করে। যেগুলা হল eWorking Tax Relief এবং Stay & Spend ট্যাক্স ক্রেডিট। সবাই যার যার প্রাপ্য রিলিফ এবং ক্রেডিট বাৎসরিক রিটার্নের সাথে ক্লেইম করতে পারে। 

E-Working Tax Relief

করনাকালীন লকডাউনে অনেকেই বাসা থেকে কাজ করতে হয়েছে। সেক্ষেত্রে কর্মজীবীদের গ্যাস, ইলেক্ট্রিসিটি, টেলিফোন ও ইন্টারনেট বাবদ অতিরিক্ত খরচ গুনতে হয়েছে। সে কথা বিবেচনায় এনে নতুন ট্যাক্স অ্যালাউন্স এর সূচনা করে।

এই অ্যালাউন্স দুইভাবে কর্মজীবীরা পেতে পারে। কোম্পানি তার কর্মচারীদেরকে অতিরিক্ত বিল পরিশোধ করে দিতে পারে অথবা কোম্পানি না দিলে কর্মচারীরা রেভিনিউতে ট্যাক্স রিলিফ ক্লেইম করতে পারে।

যদি কোম্পানি পরিশোধ করে

কোম্পানি তার কর্মচারীদের বাসা থেকে কাজের খরচবাবদ টাকা পরিশোধ চাইলে করে দিতে পারে। যদি অ্যালাউন্স দিনপ্রতি €৩.২ এর নিচে প্রদান করে সেক্ষেত্রে ওই টাকার উপর কোন ট্যাক্স, PRSI অথবা USC আরোপ হবেনা। আর যদি কোম্পানি €৩.২ এর বেশি প্রদান করে থাকে তাহলে €৩.২ এর উপর যত দিবে তার উপর ট্যাক্স আরোপ হবে।

যদি কোম্পানি অ্যালাউন্স প্রদান না করে

আর যদি কোম্পানি অ্যালাউন্স প্রদান না করে তাহলে কর্মজীবীরা বছর শেষে তা রেভিনিউ থেকে ক্লেইম করে নিতে পারবে।

রেভিনিউ এর myAccount সেকশনে নতুন অপশন যোগ করা হয়েছে, যেখানে গিয়ে ক্লেইম করতে পারবে। গত বছরের ট্যাক্স রিটার্নের সময় এই ট্যাক্স রিলিফ প্রয়োগ করা যাবে।

অ্যালাউন্স কিভাবে এবং কত হিসেব করা হবে?

একজন কর্মজীবী COVID19 এর যে সময় ধরে বাসা থেকে কাজ করেছে সে সময় থেকে বছরের শেষ দিন পর্যন্ত যতদিন কাজ করেছে তার খরচের উপর ভিত্তি করে ক্লেইম করতে পারবে। তবে সম্পূর্ণ খরচ নয়, বরঞ্চ খরচের একটা % হিসেব করে ক্লেইম করতে পারবে।

মোট খরচের ১০% হবে ইলেক্ট্রিসিটি এবং হিটিং এর জন্য এবং ৩০% হবে ব্রডব্যান্ডের জন্য।

উদাহরণঃ

ধরুন আপনি মোট ১০০ দিন বাসা থেকে কাজ করেছেন। আপনার ইলেক্ট্রিসিটি বিল আসছে €১০০০ এবং ব্রডব্যান্ড বিল আসছে €৩০০। তাহলে হিসেব নিম্নরূপঃ

ইলেক্ট্রিসিটির ক্ষেত্রেঃ
প্রথম ধাপঃ €১০০০ x ১০০ = ১০০০০০
দ্বিতীয় ধাপঃ ১০০০০০/৩৬৫ = €২৭৪
তৃতীয় ধাপঃ €২৭৪ x ১০% = €২৭.৫
ব্রডব্যান্ডের ক্ষেত্রেঃ  
প্রথম ধাপঃ €৩০০ x ১০০ = ৩০০০০
দ্বিতীয় ধাপঃ ৩০০০০/৩৬৫ = €৮২
তৃতীয় ধাপঃ €৮২ x ৩০% = €২৪.৫

তাহলে আপনি সর্বমোট রিলিফ ক্লেইম করতে পারবেনঃ €২৭.৫ + €২৪.৫ = €৫২।

স্টে এন্ড স্পেন্ড স্কিম (Stay & Spend Scheme)

স্টে এন্ড স্পেন্ড স্কিম নতুন ধরনের ট্যাক্স ক্রেডিট যা ২০২০ এবং ২০২১ পিরিয়ডের জন্য ব্যবহার করা যাবে। যা ইনকাম ট্যাক্স অথবা USC কে কমাতে সাহায্য করবে।

করনাকালিন সময়ে ট্যুরিজম সেক্টরে প্রচন্ড ধস নামে। ট্যুরিজম সেক্টরকে চাঙ্গা করতে মূলত এই ট্যাক্স ক্রেডিটের সংযুক্তি করা হয়। যাতে করে জনসাধারণ এই খাতে ব্যায় করতে অনুপ্রাণিত হয়।

১ম অক্টোবর ২০২০ থেকে ৩০এ এপ্রিল ২০২১ এর মধ্যে কেউ যদি হলিডেতে গিয়ে বাসস্থান যেমন, হোটেল, বিএনবি তে থাকে অথবা খাবার ও পানিয়ের বাবদ খরচ করে থাকে তাহলে তারা ঐ খরচটুকু ট্যাক্স ক্রেডিট হিসেবে ক্লেইম করতে পারবে। তবে খরচগুলো কোয়ালিফায়িং খরচ হতে হবে এবং প্রতি খরচের বিল কমপক্ষে €২৫ হতে হবে। ক্লেইম করার সময় €২৫ অথবা তার ঊর্ধ্বে রিসিপ্টগুলোও জমা দিতে হবে।

সর্বোচ্চ ট্যাক্স ক্রেডিট প্রতিজনে €১২৫ ক্লেইম করতে পারবে এবং জয়েন্ট এসেসমেন্টের জন্য €২৫০ পর্যন্ত ক্লেইম করা যাবে।

এই ট্যাক্স ক্রেডিট ইনকাম ট্যাক্স বকেয়া কমাতে সাহায্য করবে, অথবা বকেয়া না থাকলে ক্লেইম করলে রেভিনিউ তা ফেরত দিবে। শুধু রিসিপ্ট/ইনভয়েছ গুলো সংগ্রহে রাখুন।

ফ্রি হেল্পলাইন 

ই ব্যাপারে কারো বাড়তি তথ্য দরকার হলে অথবা ক্রেডিট ক্লেইমের ব্যাপারে কারো সহযোগিতা দরকার হলে আমাদের হেল্পলাইনে যোগাযোগ করুন। 

Facebook Comments Box