নতুন প্রধানমন্ত্রী মিহল মার্টিন নি‌য়ে কিছু কথা : এস,এ,রব

0
225


ফি‌নে ফেইল (Fianna Fáil ) লিডার মিহল মার্টিন আয়ারল্যান্ডের নতুন প্রধানমন্ত্রী হলেন।  ফি‌নে গেইল ও গ্রীন পার্টির সংসদ সদস্যদের ভোটে নতুন সরকার গঠন করলো  নতুন জোট সরকার । ফি‌নে ফেইল দলের ‌লিডার মিহল মা‌র্টিন  সংসদ সদস্যদের ভোটে নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। তিনি ভোট পান ৯৩টি।


নতুন সরকার গঠনের মধ্য দিয়ে আয়ারল্যান্ডে ‘রাজনৈতিক গৃহযুদ্ধের’ অবসান ঘটলো।
নয় জন নির্দলীয় সংসদ সদস্যও  মিহল মার্টিনের পক্ষে ভোট দেন। সংসদের তিন জন সদস্য ভোটাভুটিতে অনুপস্থিত ছিলেন।


মিহল মার্টিন হচ্ছেন কর্ক এলাকার দ্বিতীয় ব্যক্তি, যিনি আইরিশ রিপাবলিকান দলের হয়ে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পেলেন।  
নতুন প্রধানমন্ত্রী  মিহল মার্টিনের জন্ম ও বেড়ে ওঠা কর্ক নগরীতে। তাঁর পিতা ও মাতার নাম যথাক্রমে পেডি ও এলিন। তিনি ১৯৮৫ সালে স্থানীয় রাজনীতিতে যোগ দেন এবং কর্ক কর্পোরেশন নির্বাচনে জয়ী হন। চার বছর পর কর্ক সাউথ সেন্ট্রাল নির্বাচনী এলাকা থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।
মিহল মার্টিন স্বীকার করেছেন যে, তার বরাবরই আকাঙ্ক্ষা ছিল কোনো একদিন প্রধানমন্ত্রী হওয়ার।


এর আগে  মিহল মার্টিন শিক্ষা, স্বাস্থ্য, ব্যবসা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী থাকাকালে তিনি স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা ও পরিবেশ উন্নয়নে বিশেষ পদক্ষেপ নেন এবং ২০০৪ সালে প্রকাশ্যে ধূমপান নিষিদ্ধ করেন।


মিহল মার্টিন চারজন প্রধানমন্ত্রীর অধীনে মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। এদের মধ্যে শেষজন ছিলেন ব্রায়ান কাওয়েন। অর্থনৈতিক মন্দা দমনে ব্যর্থতায় তাঁর সরকারের পতন ঘটলে ২০১১ সালে  দলের নেতৃত্বে আসেন মিহল মার্টিন। তারপর অনেক ঝড়ঝঞ্ঝা পেরিয়ে আজ আয়ারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী হলেন তিনি।

Facebook Comments Box