জেনে রাখুন ‘সিপিআর’ পদ্ধতি, বাঁচবে অনেক প্রাণ (ভিডিও)

0
251

প্রায়ই বাসায় কিংবা অফিসে যেকোন স্থানে যেকোন অবস্থাতে হার্ট অ্যাটাকে মানুষের মৃত্যুর খবর শোনা যায় । মর্মান্তিক এ বিষয়টি ভাবিয়ে তুলে সবাইকে। কেননা, হঠাৎ করে একজন মানুষ অসুস্থ হয়ে গেলে কিংবা হার্ট অ্যাটাক করলে তার জন্য তৎক্ষণাৎ যে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া উচিত তার প্রশিক্ষণও আমাদের জানা নেই।

অথচ অন্যান্য শারীরিক সমস্যার মতো এই সমস্যাটির প্রাথমিক চিকিৎসা সম্পর্কে আমাদের জ্ঞান থাকলে অনেক মানুষের জীবন বাঁচানো সম্ভব হতো। সঠিক সময়ে সঠিক চিকিৎসা প্রদানের মাধ্যমে আপনি বাঁচাতে পারেন একজন মানুষকে।

হার্ট অ্যাটাকের পর প্রাথমিক চিকিৎসা হিসেবে প্রয়োগ করা হয় কার্ডিয়াক পালমোনারি রিসাসসিটেশন। সংক্ষেপে একে সিপিআর বলা হয়। কেবল স্বাস্থ্যকর্মী নয়, সাধারণ মানুষেরও এই পদ্ধতিটি জেনে রাখা উচিত। তাতে অন্তত অনেকের জীবন বাঁচানো সম্ভব হবে।

সিপিআর দেয়ার নিয়ম-

ধাপ ১- প্রথমে সমতল স্থানে রোগীকে চিৎ করে শোয়াতে হবে। রোগীর পালস ও শ্বাস আছে কি না তা সবার আগে দেখতে হবে।

ধাপ ২- এবার যিনি চিকিৎসা দেবেন তার একটি হাত প্রসারিত করে অন্য হাতের আঙ্গুল দিয়ে আটকে দিতে হবে। হাতের তালুর উঁচু অংশকে বুকের পাজরের নিচের অংশে ঠিক মাঝামাঝি স্থানে স্থাপন করতে হবে।

ধাপ ৩- প্রতি সেকেন্ডে ২ বার করে জোরে জোরে চাপ দিতে হবে। তবে খেয়াল রাখতে হবে দুই হাত যেন কোনোভাবেই ভাঁজ না হয়। এমনভাবে চাপ প্রয়োগ করতে হবে যেন দেড় থেকে দুই ইঞ্চি দেবে যায়।

ধাপ ৪- এভাবে ১৫ বার চাপ প্রয়োগের পর রোগীর কপালে ও থুতনিতে হাত দিয়ে মুখ খুলতে হবে। এরপর মুখের সাহায্যে মুখে জোরে জোরে দুবার শ্বাস দিতে হবে।

ধাপ ৫- একই পদ্ধতি আবার অনুসরণ করে ১৫ বার বুকে চাপ ও দুবার মুখে শ্বাস দিতে হবে।

এই পদ্ধতি কাজ করলেও যত দ্রুত সম্ভব রোগীকে হাসপাতালে নিতে হবে। আর তাই, বাসা, অফিস, গাড়ি সব জায়গাতেই জরুরি ফোন নাম্বারগুলো চোখে পড়ে এমন জায়গায় রাখা উচিত।

সিপিআর এর পদ্ধতি দেখতে পারেন এই ভিডিওতেও-

Facebook Comments Box