হাই কমিশনের কনস্যুলার সেবা গ্রহণের পূর্ব প্রস্তুতি ও নির্দেশিকা

0
1379

বাংলাদেশ হাই কমিশন (ইউকে) আয়ারল্যান্ডে বছরের কিছু সময় কনস্যুলার সেবা দিয়ে থাকে। অনেকে দূর দূরান্ত থেকে কনস্যুলার সেবা নিতে আসেন, অনেক সময় প্রয়োজনীয় নথিপত্র ও পূর্বপ্রস্তুতি না নিয়ে যাবার কারণে অনেকেই সমস্যায় পড়েন। কনস্যুলার সেবা মসৃণভাবে নিতে এই আর্টিকেলটি কিছুটা হলেও সহায়তা করবে। এ তথ্য কনস্যুলার সেবা ছাড়াও হাই কমিশনের অফিসের সেবার ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য হবে। 

যে যে বিষয়ে কনস্যুলার সেবা দিয়ে থাকে তা হচ্ছেঃ

১। নতুন ই-পাসপোর্ট তৈরি
২। মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট নবায়ন বা নতুন পাসপোর্ট ইস্যু
৩। নো ভিসা রিকোয়ার্ড (NVR)
৪। অ্যাটেস্টেশন অফ পাওয়ার অফ অ্যাটর্নি
৫। জন্ম নিবন্ধন ও বার্থ সার্টিফিকেট
৬। অ্যাটেস্টেশন বা প্রত্যয়ন

কনস্যুলার সার্ভিস গ্রহণের পূর্বে যে বিষয়গুলো অবশ্যই প্রস্তুত রাখতে হবে ও জেনে রাখা আবশ্যকঃ 

১। নতুন মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (MRP) এর আবেদন 

  • অনলাইনে MRP এর ফর্ম পূরণ করে সাবমিট করে প্রিন্ট করে নিতে হবে এবং তাতে সাক্ষর করে নিতে হবে। অনলাইনে ফর্ম পূরণ করতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন http://www.passport.gov.bd/
  • বাধ্যতামূলকভাবে ১৯ ডিজিটের NID (ন্যাশনাল আইডি) অথবা জন্ম সনদ থাকতে হবে। আয়ারল্যান্ডে জন্মগ্রহণ করা বাচ্চাদের ক্ষেত্রে বাবা মায়ের NID অথবা জন্ম সনদ থাকতে হবে।
  • নতুন MRP এর জন্য পুরনো পাসপোর্ট অবশ্যই লাগবে। আয়ারল্যান্ডে জন্মগ্রহণ করা বাচ্চাদের ক্ষেত্রে বাবা মায়ের পূর্বের পাসপোর্ট লাগবে।
  • স্টুডেন্ট ভিসার ছাত্রছাত্রীদের ক্ষেত্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ID হলে ডিসকাউন্ট প্রযোজ্য হবে।
  • আবেদনকারীর ছবি দরকার হবে। নবজাতক ও শিশুদের ক্ষেত্রে বাবা মায়ের ছবিও লাগবে।
  • বায়োমেট্রিকের জন্য আবেদনকারীকে স্বশরীরে উপস্থিত থাকতে হবে।
  • সাধারণ ফি £92 এবং স্টুডেন্ট ফি £30

২। মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট নবায়ন বা নতুন পাসপোর্ট ইস্যু

  • পাসপোর্ট রি-ইস্যু ফর্ম পূরণ করতে হবে। ফর্মটি এখানে পাবেন https://bhclondon.org.uk/assets/theme/file/MRP_reissue.pdf
  • পূর্বের MRP পাসপোর্ট সাথে করে নিয়ে আসতে হবে। পাসপোর্ট হারিয়ে গেলে পুলিশ রিপোর্ট সাথে আনতে হবে।
  • স্টুডেন্ট ভিসার ছাত্রছাত্রীদের ক্ষেত্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ID হলে ডিসকাউন্ট প্রযোজ্য হবে।
  • অনূর্ধ্ব ৬ বছর ছেলেমেয়েদের জন্য ছবি পরিবর্তন করা যাবে, এর উপরে হলে পাসপোর্ট সার্জারি ছবি পরিবর্তন করবে না, তার জন্য হাই কমিশনের প্রধান অফিসে যেতে হবে।
  • সাধারণ ফি £92 এবং স্টুডেন্ট ফি £30

৩। নতুন ই-পাসপোর্ট আবেদন 

পুরনো হস্তলিখিত পাসপোর্ট, MRP পাসপোর্ট, নবজাতকের পাসপোর্ট থেকে ই-পাসপোর্ট এর আবেদন করা যাবে। আবেদন পাসপোর্ট সার্জারির দিন নেয়া হবে এবং পোষ্ট এর মাধ্যমে পাঠানো হবে। ই-পাসপোর্ট করতে NID অথবা ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন সার্টিফিকেট লাগবে। অনলাইন আবেদনের প্রিন্টেড কপি অবশ্যই নিয়ে যেতে হবে। ই-পাসপোর্ট এর আবেদনের বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন ই-পাসপোর্ট নির্দেশনা এবং আবেদন করতে এখানে ক্লিক করুন অনলাইন আবেদন

প্রুফ অফ অ্যাড্রেস অবশ্যই নিয়ে যেতে হবে।

ফিঃ

  • ৫ বছরের ই-পাসপোর্টের জন্য সাধারণ ফি £96 এবং স্টুডেন্ট ফি £30
  • ১০ বছরের ই-পাসপোর্টের জন্য সাধারণ ফি £118 এবং স্টুডেন্ট ফি £50

৪। নো ভিসা রিকোয়ার্ড (NVR) প্রথম আবেদন

  • অনলাইনে ফর্ম পূরণ করে প্রিন্টেড কপি নিয়ে আসতে হবে। অনলাইনে ফর্ম পূরণ করতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন http://www.passport.gov.bd/
  • এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • আইরিশ পাসপোর্টের ফটোকপিসহ অরিজিনাল পাসপোর্ট।
  • ফটোকপিসহ অরিজিনাল বাংলাদেশি পাসপোর্ট অথবা বার্থ সার্টিফিকেট অথবা বাংলাদেশি জাতীয় পরিচয়পত্র (NID)
  • বাচ্চাদের ক্ষেত্রে ফটোকপিসহ বার্থ সার্টিফিকেট নিয়ে আসতে হবে যেখানে বাবা মায়ের নাম প্রদর্শন করে এবং বাবা মায়ের বাংলাদেশি বাংলাদেশি পাসপোর্ট অথবা বার্থ সার্টিফিকেট অথবা বাংলাদেশি জাতীয় পরিচয়পত্র (NID) নিয়ে আসতে হবে।
  • ফী £46

৫। নো ভিসা রিকোয়ার্ড (NVR) (যাদের আগে NVR ছিল)

  • অনলাইনে ফর্ম পূরণ করে প্রিন্টেড কপি নিয়ে আসতে হবে।
  • এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • আগের NVR পেইজের ফটোকপিসহ পাসপোর্টের ফটোকপি এবং অরিজিনাল আইরিশ পাসপোর্ট।
  • আগের NVR সম্বলিত পাসপোর্ট সাথে করে নিয়ে আসতে হবে।
  • ফী £46

নো ভিসা রিকোয়ার্ড (NVR) পূরণ করতে ধাপে ধাপে সহজবোধ্য নির্দেশিকা পেতে এখানে ক্লিক করুনঃ NVR ধাপে ধাপে নির্দেশিকা

৬। অ্যাটেস্টেশন অফ পাওয়ার অফ অ্যাটর্নি

  • পাওয়ার অফ অ্যাটর্নি এর সঠিকভাবে ইস্যু এবং মিনিস্ট্রি অফ ফরেইন অ্যাফেয়ার্স বাংলাদেশ থেকে অ্যাটেস্টেশন করে ডকুমেন্ট হতে হবে। পাওয়ার অফ অ্যাটর্নির নির্ধারিত ফরম্যাটে ডকুমেন্ট থাকতে হবে। এখানে দেখে নিন বিস্তারিত https://bhclondon.org.uk/power-of-attorney
  • ভ্যালিড বাংলাদেশি পাসপোর্ট বাধ্যতামূলকভাবে থাকতে হবে।
  • পাওয়ার অফ অ্যাটর্নি যে দিবে এবং যে গ্রহণ করবে উভয়ের এক কপি করে ছবি থাকতে হবে।
  • যারা পাওয়ার অফ অ্যাটর্নি দিবে তাদের সবাইকে স্বশরীরে উপস্থিত থাকতে হবে এবং হাই কমিশনের অফিসারের সামনে সাক্ষর করতে হবে।
  • সকল জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ে দলিল খতিয়ান ইত্যাদি থাকতে হবে।
  • পাওয়ার অফ অ্যাটর্নি ফী £40 (দুই কপি) এবং অ্যাটেস্টেশন ফি £7

৭। জন্ম নিবন্ধন ও বার্থ সার্টিফিকেট

  • অনলাইনে ফর্ম পূরণ ও সাবমিট করে করে প্রিন্টেড কপি নিয়ে আসতে হবে। জন্ম নিবন্ধনের আবেদনের জন্য অবশ্যই অনলাইনে এপ্লিকেশন পূরণ করে নিয়ে আসতে হবে। অনলাইন আবেদন এখানে করতে হবে https://bdris.gov.bd/br/application
  • বাংলাদেশি পাসপোর্টের কপি আবশ্যক।
  • বাংলাদেশি আইরিশ শিশুদের ক্ষেত্রে বাবা মায়ের বাংলাদেশি পাসপোর্ট লাগবে।
  • ফি £4

যা জেনে রাখা প্রয়োজনঃ 

  1. নো ভিসা রিকোয়ার্ড (NVR), মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট রিইস্যু, নতুন পাসপোর্ট এবং বার্থ সার্টিফিকেট আবেদনকারীগণকে আবেদনের সময় অবশ্যই রিটার্ন ঠিকানাসহ ইনভেলপ নিয়ে আসতে হবে।
  2. সকল সেবার খরচ কার্ডের মাধ্যমে দিতে হবে। পোস্টে রিটার্ন সম্বলিত সেবার জন্য রিটার্ন ইনভেলপ অবশ্যই নিয়ে যেতে হবে এবং পোস্টাল খরচ ইউরো/পাউন্ডে ক্যাশ নেয়া হবে। পোস্টাল খরচ ব্যতীত অন্য কোন সেবার খরচ ক্যাশে গ্রহণ করা হবে না।
  3. ফি পাউন্ডে হলেও কার্ড পেমেন্টে ইউরো রেট অনুযায়ী কার্ড থেকে কেটে নিবে। পোস্টাল চার্জ ইউরো তে ১৫ ইউরো ক্যাশ দরকার হবে (বেশিও হতে পারে, অন্তত ৫০ ইউরো ক্যাশ সাথে রাখার উপদেশ রইল)।

সকল সেবার তথ্য পেতে এখানে ক্লিক করুন

যে কোন তথ্য জানতে যোগাযোগ করুন এখানেঃ fspv.bhcl@gmail.com 

Facebook Comments Box