লোগো নিয়ে লংকাকাণ্ড – ডিজাইনারের ভুল ABAI এর মাশুল

0
626

অল বাংলাদেশি এ্যাসোসিয়েশন অফ আয়ারল্যান্ড (আবাই) এর অভিষেক অনুষ্ঠান শেষে অনেক রাতে বাড়ি ফিরলাম। অবশ্রান্ত শরীরে ঘুমিয়ে পড়লাম। সকালে উঠে দেখি একি কাণ্ড! লোগো নিয়ে ঘটে গেল এলাহি কাণ্ড। চোখ কচলে ভালো করে দেখলাম, নাহ! এই ভুল হবার তো কথা নয়। আবাই তো তাদের সঠিক লোগোটাই ব্যবহার করে আসতেছিল। এমন কি করে হল?

পরে দেখলাম যে আবাই এর প্রিন্ট করা ব্যানারটির লোগো আইভরি কোস্ট এর পতাকার আদলে তৈরি। তবে তার মানে এই না যে এই লোগোই আবাই সর্বস্থলে ব্যবহার করেছে। লক্ষ্য করে দেখবেন যে, আবাই এর অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রকাশিত যত ব্যানার/পোস্টার করা হয়েছে তাতে সঠিক লোগোটিই ব্যবহৃত হয়েছে। এমনকি অনুষ্ঠান চলাকালে ডিজিটাল স্ক্রিনে যে প্রেজেন্টেশনগুলা ছিল সবগুলোতেই সঠিক লোগোটিই ব্যবহৃত ছিল। এছাড়াও আবাই এর আরেকটি লাল সবুজের লোগোতে যে আইরিশ পতাকা ব্যবহৃত তাতেও সঠিক পতাকাটিই বলবৎ রয়েছে।

আবাই এর অনুষ্ঠানের একটি প্রচারনামূলক পোস্টার। লোগোটিতে সঠিক পতাকা ব্যবহৃত হয়েছে।
অনুষ্ঠান চলাকালে যে প্রেজেন্টেশন স্লাইড ছিল তাতেও সঠিক লোগোটিই ছিল।

সমস্যা হয়েছে আবাই একাধিক ডিজাইনার ব্যবহার করেছে এবং কারো কাছে হয়ত পুরনো লোগোটিই রয়েছে অথবা উভয় ভুল এবং সঠিক লোগোটিই রয়েছে, যার ফলশ্রুতিতে লোগো স্থানান্তরের মত মারাত্মক ভুলের বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। যদিও সোশ্যাল মিডিয়ায় তৃতীয় পক্ষ দ্বারা ভুল লোগো দ্বারা প্রকাশিত কোন খবর/ব্যানার/পোস্টার এর দায়ভার আবাই এর উপর বর্তায় না।

শুধুমাত্র এই প্রিন্টেড পোস্টারের লোগোটিই ভুল ছিল

তবে এটা ঠিক যে ভুল ডিজাইনার দ্বারা হোক কিংবা আবাই এর ইচ্ছাকৃত অথবা অনিচ্ছাকৃত ভুল, যেভাবেই হোক না কেন এর দায়ভার আবাই এর উপরই বর্তায়। আবাইকে ভুল লোগো সম্বলিত ব্যানারটি যাচাই করে নেয়া উচিত ছিল। হয়ত তা তারা করেনি অনুষ্ঠানের প্রারম্ভে সময় স্বল্পতা অথবা অনুষ্ঠান নিয়ে প্রচণ্ড চাপের কারণে। আবার এমনও হতে পারে সময় স্বল্পতার কারণে আরেকটি ব্যানার প্রিন্ট করার সময় তাদের হাতে ছিলনা। অগত্যা ভুল লোগো সম্বলিত ব্যানারটিই অনুষ্ঠানে ব্যবহার করেছে। কারণ যা ই হোক না কেন। ভুল তো ভুলই।

এই লোগোটির পতাকাও সঠিক

আপাতদৃষ্টিতে ভুলটি নিঃসন্দেহে অনাকাঙ্ক্ষিত এবং অনিচ্ছাকৃত। অবশ্যই কেউ ইচ্ছাকৃত এমন ভুল করবে না, যার ফলশ্রুতিতে তাদের নিজেদেরই মানহানি ঘটে। ভবিষ্যতে আবাই হয়ত এমন সূক্ষ্ম বিষয়ে সতর্ক থাকবে।

আবাই এর উচিত ভালো ডিজাইনার দ্বারা একটি অফিশিয়াল লোগো তৈরি করে এবং রেজিস্ট্রেশন করে নেয়া। একটি অফিশিয়াল লোগো না থাকাতে অনেকেই অনলাইন সার্স করে যে যেমন লোগো পাচ্ছে ব্যবহার করে নিচ্ছে। আবাই এর বর্তমান লোগোগুলি মোটেও পরিপূর্ণ নয় এবং ডিজাইনারদের জন্য ব্যবহার উন্মুক্ত নয়।

অনুষ্ঠান চলাকালে ডিজিটাল ব্যানারের ছবিটি লক্ষ্য করুন, তাতেও সঠিক পতাকা সম্বলিত লোগো। ছবিটি প্রতীকী এবং উদাহরণস্বরূপ ব্যবহার করা হয়েছে এখানে।

পতাকা বিভ্রাট

পতাকা নিয়ে বিভ্রাট ও বিভ্রান্তি নতুন কিছু নয়। পৃথিবীর বহু দেশের পতাকাই দেখতে একই। এমনও কিছু পতাকা আছে যে দুইটা পতাকা পাশাপাশি আপনার চোখের সামনে মেলে ধরলেও বুঝতে পারবেন না যে দুইটা দুই দেশের পতাকা। এমতাবস্থায় পতাকা ব্যবহারে এমন সূক্ষ্ম ভুল হওয়াটা খুবই সম্ভব। নিচে এমন কিছু উদাহরণ দেখানো হল যা দেখে অবাক হবেনঃ

ইন্দোনেশিয়া এবং মোনাকো পতাকা
চাদ এবং রোমানিয়া পতাকা
লুক্সেমবার্গ এবং নেদারল্যান্ডের পতাকা
সেনেগাল ও মালি

ভুল শিকার এবং ক্ষমা প্রার্থনা 

ভুল হতেই পারে। ভুল শিকার করে ক্ষমা প্রার্থনা মহৎ গুন। সেই মহৎ গুনের পরিচয় দিয়েছেন, আবাই প্রেসিডেন্ট জনাব জিন্নুরাইন জায়গীরদার। তিনি তাঁর ব্যক্তিগত ফেসবুক পেইজ থেকে ভুল শিকার ও ক্ষমা চেয়ে এইটই বিবৃতি প্রদান করেন।

ডাঃ জিন্নুরাইন জায়গীরদারের বিবৃতি

শেষ কথাঃ

যাই হোক, কেউই ভুলের ঊর্ধ্বে নয়। অনেক ভুল হয়ত অনেকের চক্ষুগোচর হয় না। তবে ভুল কারো দৃষ্টিগোচর হলে তা ধরিয়ে দেয়াই শ্রেয়। এতে করে ভুল শোধরানোর সুযোগ থাকে। তা না হলে একই ভুলের পুনরাবৃত্তি হবার সম্ভাবনা থেকে যায়।

আবাই যেহেতু একটি দায়িত্বশীল জায়গায় আছে, সেক্ষেত্রে তাদেরেকে সমালোচনা করার অধিকারও মানুষের রয়েছে। সমালোচনা মানে বিরোধিতা নয়। সমালোচনা হচ্ছে দায়িত্বরতদের সঠিক পথে পরিচালিত করার হাতিয়ার। অবশ্যই সমালোচকদের সমালোচনা করা প্রয়োজন, তবে তা হতে হবে ঘটনমূলক।

তবে সমালোচনা হতে হবে ভালোর উদ্দেশ্যে। কাউকে হেনস্থা বা অপমানের উদ্দেশ্যে নয়। এমন নয় যে একটা ইস্যু পেলাম আর চেপে বসলাম। কিছু ভুল খুব জল ঘোলা না করে সমাধান যোগ্য। ভুলকারীকে যদি সরাসরি তার ভুলের ব্যপারে অবহিত করা হয় তাহলে খুব সহজেই হয়ত বিষয়টা সমাধান হয়ে যায় এবং ভবিষ্যতের জন্য সাবধান হয়ে যায়।

কিছুদিন আগে আমার একটি পোস্টে কিছু বানান ভুল ছিল, একজন আমাকে ব্যক্তিগত মেসেজ দিয়ে অবহিত করেছেন। আমাকে হেনস্তা করার উদ্দেশ্য থাকলে, তিনি তা আমার পোস্টের কমেন্টে গিয়ে করতেন।

এরপর একটা অনুষ্ঠানের ব্যপারে এক ভাই বললেন আপনাদের অনুষ্ঠানে এই সংযোজনটা না করলে ভালো দেখাবে না। পরে আমি দেখলাম ঠিকই তো, এটা তো আমাদের মাথায়ই ছিলনা। কিন্তু উনার হেনস্থার উদ্দেশ্য থাকলে উনি আগে বিষয়টি অবহিত না করে অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার পরে ওই বিষয় নিয়ে সমালোচনায় মত্ত হতে পারতেন। উদাহরণগুলো ছোট উদাহরণ হলেও সর্বক্ষেত্রেই তা প্রযোজ্য বলে মনে করি।

যা হবার হয়েছে, আবাই এর অনুষ্ঠানও সম্পন্ন হয়ে গিয়েছে। পেছনে গিয়ে তা আর পরিবর্তন করার সুযোগ নেই। কিন্তু ভবিষ্যতে শুধরানোর পথ খোলা অবশ্যই রয়েছে।

পুনশ্চঃ এই রিপোর্টটি একান্তই রিপোর্টারের নিজস্ব মতামত। আবাই এর কোন অফিশিয়াল স্টেটমেন্ট নয়।

ওমর এফ নিউটন
আইরিশ বাংলা টাইমস

Facebook Comments Box