জম্মু-কাশ্মীরে পাকিস্তানের মুহুর্মুহু গোলাবর্ষণে প্রাণ গেল ভারতীয় সেনার

0
239

ভূস্বর্গ খ্যাত জম্মু-কাশ্মীরের রাজৌরি জেলার নৌশেরা সেক্টরে পাকিস্তানের গোলাবর্ষণে ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক জুনিয়র অফিসার নিহত হয়েছেন। সোমবার (৫ অক্টোবর) নিয়ন্ত্রণরেখার বাবখোরি এলাকায় ব্যাপকভাবে গোলাবর্ষণ করে পাক সেনাবাহিনী।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি বলছে, বিনা প্ররোচনায় সোমবারও রাজৌরির নৌশেরা সেক্টরে গোলাবর্ষণ করেছে পাকিস্তান। এবারের হামলায় এক সেনা প্রাণ হারিয়েছেন। ভয়াবহ এ ঘটনার পর ভারতও পাল্টা গোলাবর্ষণ শুরু করে। যদিও হামলার বিস্তারিত এখন পর্যন্ত জানা যায়নি।

মোদী সরকারের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র জানান, জম্মুর রাজৌরি ও পুঞ্চের নিয়ন্ত্রণরেখা সংলগ্ন দু’টি সেক্টরে পাকিস্তানি সেনারা গুলি চালিয়েছে। একই সঙ্গে মর্টার সেলও নিক্ষেপ করা হয়। এদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত রাজৌরির নৌশেরা সেক্টরে ভারী গোলাবর্ষণ করে পাকিস্তান।

সন্ধ্যা থেকে নৌশেরায় দু’পক্ষের গোলাগুলি শুরু হয়। কিছুক্ষণ ধরে গোলাগুলি চলার পর তা বন্ধ হয়ে যায়। ওই মুখপাত্র আরও জানান, রাত ৮টা ২০ মিনিটে আবারও পাক গোলাবর্ষণ শুরু হয়।

সে সময় পুঞ্চের দেগওয়ারকে লক্ষ্য করে বিনা প্ররোচনায় গুলি ছোড়ে পাকিস্তান। সঙ্গে মর্টার সেলও নিক্ষেপ করা হয়। গভীর রাত পর্যন্ত উভয় পক্ষের গোলাগুলি চলেছে

সোমবার শ্রীনগরের কাছে সন্ত্রাসীদের হামলার ঘটনাও ঘটেছে। হামলায় সিআরপিএফের ২ জওয়ান নিহত হন। গুরুতর আহত হয়েছেন আরও তিনজন। পুলিশ সূত্র জানিয়েছে, দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামার পাম্পোরে বাইপাসের কাছে কান্দিজেল ব্রিজের উপর বেলা ১২টা ৫০ মিনিটে নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় সন্ত্রাসীরা।

হামলায় নিহতরা ১১০ ব্যাটেলিয়নের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। হামলার পর পুরো এলাকায় তল্লাশি অভিযান চালায় যৌথ বাহিনী। টহলদারির সময় নিরাপত্তাবাহিনীকে লক্ষ্য করে জঙ্গিরা ফের গুলি ছুড়লে তিন জওয়ান গুলিবিদ্ধ হন। তাদের জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার পরই জম্মু-শ্রীনগর জাতীয় সড়কপথ বন্ধ করে দেওয়া হয়।

জম্মু-কাশ্মীরে গত আট মাসে ৩১৮৬টি সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটেছে। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে এই সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটেছে।

Facebook Comments Box