কোভ-ঈদ মোবারক

0
621

মনে আছে? গত ঈদুল ফিতরের নামাজ আমরা ঘরে ঘরে পড়েছিলাম! আমাদের জীবদ্দশায় এমন নজীর আর মেলেনি। যা ছিল অকল্পনীয়। এক বছর পরেও যে করোনার থাবার মুখে বাস করতে হবে তাও ছিল কল্পনাতীত। বছর ঘুরে এল আরেক রমজান, আরেক ঈদ। কিন্তু মহিমান্বিত এই মাসে অনেক জায়গায়ই খোলেনি মসজিদের দ্বার, জামায়াতে ঈদের নামাজ হবে কিনা, হবে কিনা নামাজ শেষে উষ্ণ মোলাকাত, তারও নেই নিশ্চয়তা। 

উষ্ণ ঈদের মোলাকাত কি সম্ভব হবে?

করোনার এক বছর গত হয়ে গেল, কিন্তু বিদায় হলনা করোনার। মাঝে মধ্যে আশার সঞ্চার হয়, আবার মাঝে মাঝে সেই আশায় প্রদীপ ক্ষীণ হয়ে আসে। করোনার উঠানামা, ক্ষণে ক্ষণে রূপ পরিবর্তনে নাভিশ্বাস উঠে যাচ্ছে মানব সমাজের। সম্প্রতি ভারতে করোনার আগ্রাসন দেখে মনে হয় এ দানব থামবার নয়। যত ঔষধ ভ্যাকসিন এর প্রতিরক্ষা কবজ সবই যেন তার কাছে তুচ্ছ।

মহাউল্লাসে রাজ করা প্রাণসংহারী এ দানব কেড়ে নেয় বহু মানুষের প্রাণ, হুমকির মুখে ফেলে দেয় বহু মানুষের জীবন, ভূপাতিত করে দেয় বহু মানুষের শরীর, অর্থনৈতিক ও মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে দিয়েছে অনেককেই। করোনা ১৫০ মিলিয়নেরও বেশি মানুষকে তার স্বাদ পাইয়ে দেয় এবং কেড়ে নিয়েছে ৩ মিলিয়নেরও বেশি মানুষের প্রাণ। তারপরেও মনে হচ্ছে তৃষ্ণা মেটেনি এই রাক্ষুসে দানবের।

তার পরেও শোকর গুজার করি মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের প্রতি, যারা আজও নিচ্ছি পৃথিবীর বুকে নিশ্বাস। সৌভাগ্য হল আরেকটি রমজানের স্বাদ নেয়ার, আরেকটি ঈদের চাঁদ দেখার। সৌভাগ্য হল অতীত কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা প্রার্থনার, সৌভাগ্য হল মানব জাতির কল্যাণের জন্য দোয়া চাওয়ার। গত রমজানে অনেক প্রিয়জন আমাদের মাঝে ছিলেন, যারা এই রমজানে নেই; সবার জন্য দোয়া চাইতে পারাটাও একটা সৌভাগ্য।

অতীতেও এমন ভয়াল মহামারি বিভিন্ন সময়ে এসেছিল এবং ঘ্রাস করে নিয়েছিল বহু প্রাণ, ধ্বংস করে দিয়েছিল জনপদ থেকে জনপদ। এর পরে আবার ফিরে এসেছে সুস্থ পৃথিবী। এক্ষেত্রেও আমাদের প্রত্যাশা যে, একসময় মানবজাতির মুক্তি ঘটবে এই মহামারির ত্রাস থেকে। ফিরে আসবে সুস্থ, সুন্দর, মুক্ত বিহঙ্গের মত স্বাভাবিক জীবন।

ফিরে আসুক স্বাভাবিক রমজান, স্বাভাবিক ঈদ। নির্ভয়ে, স্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণভাবে যেন করতে পারি ঈদের নামাজ শেষে উষ্ণ মোলাকাত।

তবে জানিনা এ জীবন শেষ হবার আগে করোনার শেষ হবে কিনা। এও জানিনা করোনা শেষ হবার আগে কত জীবনের সমাপ্তি ঘটে। কিন্তু যাদেরই সৌভাগ্য হবে করোনা পরবর্তী জীবন দেখার ও উপভোগ করার, সবার জন্য থাকবে সুখী স্বাচ্ছন্দ্যময় জীবনের জন্য শুভকামনা। আর যারা পাড়ি জমিয়েছেন অথবা জমাব অনন্তকালের উদ্দেশে, সবার অনন্তকালের জীবন যেন হয় নিষ্পাপ আল্লাহর মহিমাপূর্ণ।

আসুন একসাথে হাতে হাত রেখে এই দুর্যোগের মোকাবেলা করি। পাশে দাঁড়াই সবাই সবার। এগিয়ে আসি একে ওপরের সাহায্যে। মেনে চলি স্বাস্থ্যবিধি, মেনে চলি সরকার ও বিশেষজ্ঞদের উপদেশ। বিরত থাকি হিংসা, হানাহানি থেকে। দিন শেষে আমরা সবাই মানুষ, সকলের ত্বরে সকলে আমরা। আসুন প্রাণ খুলে দোয়া করি সবাই সবার জন্য।

মুক্ত বিহঙ্গের মত স্বাচ্ছন্দ্যময় জীবনের প্রত্যাশায় ঈদ মোবারক।

Facebook Comments Box