কমিউনিটিতে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ কাউন্সিল থেকে পুরস্কৃত হল দশ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান

0
146

জান্তে-অজান্তে, প্রাকাশ্যে-নিভৃতে সমাজের জন্য অবদান রেখে চলেছেন অনেকেই। তন্মদ্ধে ভিনদেশ থেকে এসে বসত গড়া অভিবাসীরাও রয়েছেন। কিন্তু তাঁদের অবদানের স্বীকৃতি মেলে খুব কমই। স্বীকৃতির তালিকা থেকে অভিবাসীরা উপেক্ষিতই থাকে বলা চলে।

সমাজের জন্য অবদান রাখা এসব নিবেদিত প্রাণ ব্যক্তিবর্গের কথা চিন্তা করে কাউন্সিলর আজাদ তালুকদার একটি মহতি উদ্যোগ গ্রহণ করেন। স্বীকৃতি দেয়ার জন্য তিনি কমিউনিটিতে অবদান রাখা কিছু ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নাম কাউন্সিল কতৃপক্ষের নিকট করতে আবেদন জানান। কাউন্সিল তাঁর আবেদনকে মঞ্জুর করেন। কারণ বিগত বছরগুলোতে কাউন্সিল কর্মের স্বীকৃতিসরূপ বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করে আসছে। কিন্তু অভিবাসীদেরকে পুরস্কৃত করার দৃষ্টান্ত স্থাপন করল লোকাল সরকার। আর এর পেছনে বর্তমান কাউন্সিলর আজাদ তালুকদারের ভূমিকা অপরিসীম।

গতকাল ২৮ ই মে লিমেরিকের ডুরাডয়েল কাউন্সিলের অ্যাসেম্বলি কক্ষে এ পুরস্কার প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানটি সূচনা করেন কাউন্সিলর Kieran O’Hanlon ও কাউন্সিল অফিশিয়ালগণ অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পুরস্কৃত ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান এবং সাথে তাঁদের পরিবারবর্গ। মিডিয়ার মধ্যে উপস্থিত ছিল আইরিশ বাংলা টাইমস ও বিভিন্ন কমিউনিটি থেকে আগত সাংবাদিকবৃন্দ। অনুপস্থিত পুরুস্কারপ্রাপ্তদের পক্ষ হতে পুরুস্কার গ্রহণ করেন তাঁদের পরিবার ও শুভাকাঙ্ক্ষীগন।

কাউন্সিলর তালুকদার জানান, ”আমি দেখে আসতেছি লোকাল কমিউনিটির অনেকেই তাঁদের অবদানের জন্য পুরস্কৃত হয়ে আসতেছে, সেজন্য আমিও চিন্তা করলাম আমাদের অভিবাসীদের থেকে অনেকেই কমিউনিটিতে অবদান রেখে চলেছে, তাঁদেরকেই স্বীকৃতি জানানো যায় কিনা। সে জন্য আমি আমার মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই চেয়েছি অভিবাসীদেরকে সিস্টেমের অন্তর্ভুক্ত করতে। যাতে ভবিষ্যতে এ ধরণের অ্যাওয়ার্ড প্রদান করলে অভিবাসীরাও বিবেচনায় থাকে’’।

তিনি আরো জানান, ”আমি চারজন ইমামকে পুরস্কৃত করতে পেরে অনেক আনন্দিত, তাঁরা শুধু ধর্মীয় কাজই নয়, নানা ধরণের নৈতিক কাজের সাথে জড়িত। সমাজকে ভালো রাখতে তাঁরা সবসময় উপদেশ ও পরামর্শ দিয়ে থাকেন, তরুণ প্রজন্মকে সঠিক পথ দেখিয়ে থাকেন। আমাদের বাংলাদেশি ফুটবল দল দীর্ঘদিন আমাদেরকে ভালো খেলা উপহার দিয়ে আসতেছে। একদিন তাঁরা হয়তো আইরিশ ফুটবলেও অবদান রাখবে, তাঁদেরকে পুরস্কৃত করতে পেরে আমি সত্যিই পুলকিত’’।

জনাব তালুকদার স্বহস্তে পুরস্কারপ্রাপ্তদেরকে পুরস্কার তুলে দেন।

সর্বমোট ১০ জন ব্যক্তি ও সংগঠন অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেন। নিম্নে তাঁদের নাম ও সংক্ষিপ্ত বিবরণ দেয়া হল।

Abdullah Jaribu

In recognition of his role as Imam in the Al Furqan Muslim Community Centre in Limerick and contribution to a build better society.

আবদুল্লাহ জারিবুর অনুপস্থিতিতে পুরস্কার নিচ্ছেন তাঁর শুভাকাঙ্ক্ষী

Issa Timan

In recognition of his role as Imam in the Mosque Al-Noor and contribution to build a better society.

Khalid Ghafour

In recognition of his role as Imam in the Islamic Cultural Centre, Limerick and contribution to build a better society.

খালিদ গফুরের অনুপস্থিতিতে পুরস্কার নিচ্ছেন একজন শুভাকাঙ্ক্ষী

Faisal Azimi

In recognition of his achievement of winning national title in kickboxing.

Fasih Khan

In recognition and appreciation of his contribution to the health sector in Limerick over the past 30 years.

Perpetua Balberona

In recognition and appreciation of her long standing nursing service and contribution to the health sector in Limerick.

Soumen Pahari

In recognition of his contribution in promoting diverse Indian culture and multicultural faith in Limerick.

Bangladeshi Youth Football Team Limerick

In recognition of the team’s achievements over the past few continuous years and promoting football in Ireland.

Limerick Cricket Club

In recognition of the clubs contribution to the cricket in Limerick and promoting cricket in Ireland.

Limerick Blasters Cricket Club

In recognition of the clubs contribution to the cricket in Limerick and promoting cricket in Ireland.

***

Facebook Comments Box