একুশে বইমেলায় পাঁচটি বই নিয়ে হাজির হচ্ছেন ডাঃ জিন্নুরাইন জায়গীরদার

0
147

একজন জিন্নুরাইন জায়গীরদার। বিশেষণের পর বিশেষণ যার আগে পিছে। একজন কবি, একজন চিকিৎসক, একজন নেতা কত নামেই আমরা চিনি তাঁকে। কর্মব্যস্ত একজন পুরোদন্তুর চিকিৎসক এবং একজন কমিউনিটির দায়িত্বভার কাঁধে নিয়েও লেখালেখি চালিয়ে যাচ্ছেন সমান তালে। বিরতি না নিয়েই প্রকাশ করে চলেছেন বইয়ের পর বই। এবারের বইমেলায় তো তিনি চমক দেখিয়ে নিয়ে আসতেছেন একটা নয় দুইটা নয়, পাঁচ পাঁচটি বই।

তিনি নিজেই জানান চিকিৎসা হচ্ছে তাঁর পেশা, আর বাকি যা কিছু করেন তা হচ্ছে তাঁর নেশা। সেই নেশার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে লেখালেখি। সে নেশার আধিক্য যে কতটুকু, সে নেশায় কতটুকু বুঁদ হয়ে থাকলে এক বইমেলায় একাধিক বই প্রকাশ করা সম্ভবপর হওয়া সম্ভব! তিনি কোনও পেশাদার লেখক নন তারপরেও অন্য পেশার পাশাপাশি এতগুলা বই লেখা বিস্ময়কর বটেই।

ডাঃ জিন্নুরাইন জায়গীরদার

অমর একুশে বইমেলায় জনাব জায়গীরদারের সর্বমোট ৫ টি বই প্রকাশ হচ্ছে। তন্মদ্ধে হরিৎপত্র প্রকাশনী থেকে তিনটি এবং বর্ষা দুপুর প্রকাশনী থেকে দুইটি বই।

কবিতাগুলো হচ্ছে যথাক্রমেঃ

জন্মভূমি স্বদেশ আমার (১ম খন্ড)
জন্মভূমি স্বদেশ আমার (২য় খন্ড)
বিরল তিরস্কার
কবিতায় কথা
সীমান্ত সংসার

“জন্মভূমি স্বদেশ আমার” কাব্যগ্রন্থদ্বয়ে কবি তাঁর জন্মভূমি বাংলাদেশের প্রাত্যহিক জীবনের একটি কাব্যিক তৈলচিত্র অংকনের প্রয়াস গ্রহণ করেছেন। “জন্মভূমি স্বদেশ আমার” নিছক সাহিত্যিক প্রচেষ্টা নয়; বরং এটি বাংলাদেশের বহুমুখী বাস্তবতার উন্মোচনে অঙ্গীকারের প্রমাণ। এ গ্রন্থে ফুটে উঠেছে বাংলাদেশের আর্থসামাজিক, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, পরিবেশ, পরিস্থিতি ও অবস্থা। কবি বলেন, ‘’আমার ঐকান্তিক ইচ্ছা যে, এই কবিতাগুলো পাঠকের হৃদয়ে অনুরণিত হোক। আমার কবিতাগুলি, প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশের ভবিষ্যতের জন্য সকল নাগরিকের দায়িত্ববোধকে জাগ্রত করুক, মূল্যবোধের উন্নতি ঘটুক, বিবেক আর যুক্তির জগতে বৈপ্লবিক কিছু পরিবর্তনের মাধ্যমে, এই কাব্যগ্রন্থ একটি নতুন আশা জাগিয়ে তুলুক, এটাই আমার ঐকান্তিক প্রার্থনা’’।

“বিরল তিরস্কার” কাব্যগ্রন্থটি এমন একটি সংকলন, যা বিভিন্ন দেশ জুড়ে ভ্রমণ এবং কয়েকটি দেশে বসবাসের অভিজ্ঞতার উজ্জ্বল রঙগুলিকে একত্রিত করে, একটি কাব্যিক রূপ প্রদান করেছে। এই কাব্যগ্রন্থের বিভিন্ন কবিতার মাধ্যমে বর্তমান বিশ্বের বিভিন্ন সীমানায় বিভক্ত দেশ থেকে দেশের বহুমুখী দিকগুলি অবলোকন করা সম্ভব। বহির্বিশ্বকে অবলোকন করে আমাদের চিন্তা-ভাবনার সাথে, জাতিগত এবং ভৌগলিক সীমানায়, প্রকৃতি আর মানবের মিথোষ্ক্রিয়া এই কবিতাগুলোর মূল ধারনা, যা লিখিত কথার মাধ্যমে প্রতিবিম্বিত হয়েছে। কবির বর্তমান আবাসস্থল আয়ারল্যান্ড, এই দেশের ইতিহাস, রাজনীতি, জলবায়ূ, ধর্ম, দ্বন্দ্ব, অর্থনীতি, ভাষা, বিবর্তন সবই উঠে এসেছে পনেরটি কবিতায়।

“কবিতায় কথা” কাব্যগ্রন্থে কবি এমন একটি সংকলন উপস্থাপন করেছেন যা কবিতার মহাবিশ্বকে প্রদক্ষিণ করে। এই সংকলন প্রকাশ করে “কবি” হিসাবে নিজেকে দাবী না করেও তিনি “কবিতার” স্পন্দন খুঁজতে চেষ্টা করেছেন। তাই তিনি, লিখেছেন কবিতা কি? নিজের রচনা আদৌ কবিতা হয় কি না তাঁর অজানা, কেউ দাবী করলেই কবি হওয়া যায় কি না? কবিতা কিভাবে লিখতে হয়? ইত্যাদি প্রসঙ্গ তিনি উত্থাপন করেছেন আপন মহিমায়। এই সংকলনে তিনি যেমন ছন্দোবদ্ধ কবিতা লিখার চেষ্টা করেছেন একইভাবে আধুনিক গদ্য কবিতাকেও দিয়েছেন স্থান, আধুনিকতাকে ছাপিয়ে উত্তরাধুনিকতা ঘুরে তিনি অত্যাধুনিক হওয়ার কথাও প্রকাশ করেছেন এই বিশ্বের বর্তমান সময়ের প্রকট সমস্যার বেড়াজালে।

”সীমান্ত সংসার’’ কাব্যগ্রন্থে কবি তুলে এনেছেন তাঁর বাস্তব অভিজ্ঞতা, আবেগ, অনুভূতি ও স্মৃতি। জন্ম থেকে মৃত্যু অবধি এই সংসারে তার নিজের অনুভুতির প্রতিফলন এই বইতে প্রকাশিত হয়েছে। জন্ম, মা-বাবার অনুভুতি, জীবন যাত্রায় অসুস্থতা, বেদনা, আনন্দ হতাশা সকল অনুভুতির প্রতিফলন দেখা যাবে তার এই কবিতা সংকলনে।

উপরোক্ত বইগুলো পাওয়া যাবে অমর একুশে বইমেলায় হরিৎপত্র ও বর্ষাদুপুর প্রকাশনীর স্টলে।

এছাড়াও অতীতে জনাব জায়গীরদারের আরও ছয়টি বই প্রকাশিত হয়েছে। বইগুলো হচ্ছে যথাক্রমেঃ

বিশ্বাসের মৃত্যু
স্বাধীনতা আমার
সমাজ সংকটে
বর্ণমিছিল
হীরক নামান্তর
বন্ধু তোমার জন্য

গুনি এই লেখক এ পর্যন্ত প্রায় ডজনখানেক বই উপহার দিয়েছেন পাঠকদেরকে। তাঁর বইগুলোর বিশেষত্ব হচ্ছে, একেকটি বই একেকটি বিষয়ের উপর ভিত্তি করে লিখিত। বিষয়ভিত্তিক বইয়ে তিনি চেয়েছেন একেকটি বিষয়কে পাঠকের সামনে তুলে ধরতে।

জনাব জিন্নুরাইন জায়গীরদার পেশায় একজন চিকিৎসক। তিনি বর্তমানে অ্যানেসথেশিয়া এবং ইন্টেনসিভ কেয়ারে কন্সাল্ট্যান্ট হিসেবে নিযুক্ত রয়েছেন। এছাড়াও যুক্ত আছেন সামাজিক কার্যক্রমে। তিনি আয়ারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় সংঘটন, অল বাংলাদেশি এ্যাসোসিয়েশন অফ আয়ারল্যান্ডের নির্বাচিত সভাপতি। লেখালেখিতেও জনাব জায়গীরদার পারদর্শী। নিয়মিত লিখে যাচ্ছেন এবং উপহার দিচ্ছেন অসাধারণ সব গ্রন্থ।

গুনি এই কবির জন্য রইল শুভেচ্ছা। আরও বই উপহার দিন এই প্রত্যাশা করি। ডানা মেলে আরও দূরে উড়ে বেড়ান, এই শুভকামনা রইল।

Facebook Comments Box