উৎসব মুখর পরিবেশে আয়ারল্যান্ডে ঈদুল ফিতর ২০২২ উদযাপিত

0
236

স্টাফ রিপোর্ট : করোনার বিধি নিষেধের কারনে আয়ারল্যান্ডে বিগত দু বছর ঈদ উদযাপন মূলত পারিবারিক পরিবেশেই সীমাবদ্ধ ছিল । কিন্তু এ বছর কোন বিধি নিষেধ না থাকায় সমগ্র আয়ারল্যান্ডে মুসলমানদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর অত্যন্ত আনন্দ মুখর এবং উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে পালিত হয়েছে ।

আয়ারল্যান্ডে অধিকাংশ কাউন্টিতে আলাদা আলাদা ভাবে মুসলমানেরা একত্রিত হয়ে ঈদের নামাজ আদায় করেন । আয়ারল্যান্ডের রাজধানী ডাবলিনে একের অধিক স্থানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় । তন্মধ্যে উল্লেখযোগ্য জামাত ছিল Islamic Cultural Centre of Ireland ( ICCI ) , Islamic Cultural Centre Swords , Dublin City Masjid , South Dublin Maqtab Lucan এবং Tallaght Mosque ।

ঈদ কে নিয়ে আয়ারল্যান্ডে বাংলাদেশী মুসলিম কমিউনিটিতে ঈদের আনন্দকে সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে বিভিন্ন কাউন্টিতে ঈদ পূর্ণমিলনী  অনুস্ঠান অনুষ্ঠিত হয় । যেখানে প্রবাসে থেকেও বাংলাদেশীরা একত্রিত হয়ে একে অন্যের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন , ঈদের আনন্দ কে ভাগাভাগি করে নিয়েছেন । প্রত্যেক টি অনুষ্ঠানে মজার মজার সুস্বাদু রকমারি খাবারের পাশাপাশি বাচ্চাদের মনোরঞ্জনের জন্য বিভিন্ন মজার মজার ইভেন্টের আয়েজন ছিল । এমন কি বড়দের  জন্য বিভিন্ন আনন্দ আয়োজনের ব্যবস্থা ছিল । 

আয়ারল্যান্ড  বাংলাদেশ কমিউনিটিতে ঈদুল ফিতর কে কেন্দ্র করে বিভিন্ন কাউন্টিতে ঈদ পূর্ণমিলনী  অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় । উল্লেখযোগ্য অনুষ্ঠানের মধ্যে ছিল – 

লিমরিকের ফোর স্টার গ্রীনহিল হোটেলে উদযাপিত হয় মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর।স্থানীয় সুত্রে জানা যায় – লিমরিকবাসীর সহায়তায় অনুষ্ঠানটির সার্বিক তত্ত্বাবধান করেন জনাব মনিরুল ইসলাম। এছাড়াও অনুষ্ঠানটিতে সার্বিকভাবে সহায়তা প্রদান করেন যথাক্রমে আজাদ তালুকদার, আনোয়ারুল হক, মোজাম্মেল হক, সাজেদুল চৌধুরী রুবেল, আমিরুল ইসলাম তপন, শামীম আহমেদ, ওমর এফ নিউটন প্রমুখ। এছাড়াও সার্বিক সযোগিতায় ছিলেন অনুষ্ঠানে আগত ভদ্রমহিলাগণ। অনুষ্ঠানে লিমরিকের স্থানীয় বাংলাদেশীরা  স্বপরিবারে অংশগ্রহন করেন এবং বিপুল সংখ্যক মানুষের সমাগম হয় । শিশু/কিশোরদের পাশাপাশি অভিবাবকগণও বিভিন্ন আনন্দ আয়োজনে অংশগ্রহন করেন । 

অন্যদিকে ডোনেগাল বাংলাদেশী কমিউনিটির ঈদ পূর্ণমিলনী ৩রা মে রোজ মঙ্গলবার , ডোনেগাল বাংলাদেশী কমিউনিটির উদ্যোগে স্থানীয় লেটারকিনি কমিউনিটি সেন্টারে সন্ধ্যা ৯.৩০ মিনিটে বর্ণিল ও জমজমাট আয়োজনের মধ্য দিয়ে ঈদ পুন;মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে।স্থানীয় সুত্রে বলা হয় – ঈদ পূর্ণমিলনী অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কমিঊনিটি সদস্য ওবায়দুর রহমান রুহেল , কমিউনিটির চেয়ারপার্সন ডা;মুহাম্মাদ রফিক উল্লাহর সভাপতিত্বে ঈদের শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়ে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। 

লেটারকিনি মেয়র জিমি কাভানা তাঁর শুভেচ্ছা বক্তব্যে ডোনেগাল বাংলাদেশী কমিউনিটির ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং কমিউনিটি সদস্যদের  যেকারো প্রয়োজনে কাউন্সিলের পক্ষ থেকে সব ধরনের সাহায্য সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানের শেষের দিকে ছিল মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা।স্থানীয় কমিউনিটি শিল্পী বৃন্দ গান পরিবেশন করেন ।,সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ ছিল কাউন্টি কর্ক থেকে আগত উদীয়মান তরুণ শিল্পী আভি আজিতাভ রয়।

ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানকে সাফল্যমণ্ডিত  করার জন্য যারা অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন তাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন জনাব শাকিল আহমেদ, জনাব ফারুক হোসেন সুমন, জনাব তানভীর আহমেদ জনি, মিসেস মীনা, মিসেস মহসীনা কচি, মিসেস ইসরাত মুন ও জনাব সামাল আহমেদ।

কাউন্টি গলওয়েতেল ঈদ উৎসব ছিল অনেক জাক জমকপূর্ণ  এবং উৎসব মুখর । স্থানীয় সংবাদদাতার মাধ্যমে জানা যায় – ২০০৬ থেকে এখন পর্যন্ত যতগুলো বাংলাদেশি কমিউনিটি গলওয়েতে হয়েছিলো ,তারা কখনো সবাইকে একত্রে এভাবে মিলিত করতে পারেনি। যেটি পেরেছে অল্প কিছু নারী। একটি স্বদিচ্ছা যে সবাইকে একত্রিত করতে পারে, সেটিরই প্রমান করলেন ঐ সব আলোকিত নারীরা। গলওয়ের সল্টহিল জি,এ,এ ক্লাবে ঈদের দিনটি বাংলাদেশিরা যেভাবে পালন করেছেন, সেটি একটি ইতিহাস হয়ে থাকবে । 

এর আগে এত বাংলাদেশি জড়ো হয়ে আনন্দ ভাগাভাগি এই প্রথম। এরই ধারাবাহিকতায় আগামী দিনে একে অপরের মাঝে বন্ধনগুলো আরো মজবুত হবে বলে ধারনা এখানের বাংলাদেশিদের। এখানে বেড়ে ওঠা ছেলেমেয়েরা ঈদের দিনটি যেভাবে ছোটাছুটি, গান, নাচ, খুনসুটি দিয়ে শেষ করেছে, তাতে আগামী দিনে এ উৎসবের মাত্রা যে আরো বহুগুণ বেড়ে যাবে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষন ছিলেন তরুন উদিয়মান শিল্পী আভির মন মাতানো গান । তাছাড়া স্থানীয় শিল্পীবৃন্দ বিভিন্ন ইভেন্টে অংশগ্রহন করেন ।

কাউন্টি ওয়াটারফোর্ডেও প্রবাসী বাংলাদেশীরা ঈদ উদযাপন করেছেন । স্থানীয়  বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এবং কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব শামীম কবির স্থানীয় বাংলাদেশীদের নিয়ে ঈদ উৎসব পালন করেন ।

কাউন্টি মীথ ( Meath ) এ্যাশবর্ণেও ( Ashbourne  ) স্থানীয় বাংলাদেশ কমিউনিটি একত্রিত হয়ে আনন্দমুখর পরিবেশে ঈদ উদযাপন করেন ।

ক্লনডালকিন বাংলাদেশ কমিউনিটিও জাক জমকপূর্ণ এবং উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে ঈদ উৎসব পালন করেন । অনুষ্ঠানে সবাই স্বপরিবারে অংশগ্রহন করে একে-অন্যের সঙ্গে ঈদের খুশীকে ভাগাভাগি করেন । বাচ্চাদের জন্যও বিশেষ আয়োজন ছিল । 

ডাবলিনে গত ৮ই মে Multicultural Festival , Clongriffin এ অনুষ্ঠিত হয় । ডাবলিন সিটি কাউন্সিল এবং তাসনুবা শামীম ফাউন্ডেশন এর যৌথ উদ্যোগে Multicultural Festival সফল ভাবে সম্পন্ন হয় । সেখানে আইরিশদের পাশাপাশি আয়ারল্যান্ডে বসবাসরত বিভিন্ন দেশের মানুষ স্বপরিবারে উৎসবে অংশগ্রহন করেন । বিশেষ করে বাংলাদেশীদের উপস্থিতি ছিল উৎসাহব্যঞ্জক । Festival এ বাচ্চাদের জন্য বিশেষ ইভেন্টের ব্যবস্থা ছিল । শিশু/কিশোর দের নৃত্যানুষ্ঠান উপস্থিত সবাইকে মুগ্ধ করে । উৎসবে বিভিন্ন ধরনের খাবারের স্টলের ব্যবস্থা ছিল । Festival এ ডাবলিন লর্ড মেয়র Alison Gilliland উপস্থিতি ছিল বাড়তি আকর্ষণ । তিনি Multicultural Festival কে কমিউনিটি integration হিসেবে উল্লেখ করেন এবং উপস্থিত সবাইকে ধণ্যবাদ জানানোর পাশাপাশি তাসনুবা শামীম ফাউন্ডেশন কে ধণ্যবাদ জানান ।

আনন্দের খবর হচ্ছে আগামী ১৫মে ডাবলিনে দ্বিতীয় বারের মতো অমর একুশে বইমেলা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে । ধারনা করা হচ্ছে ঐদিন প্রবাসী বাংলাদেশীদের একটি বৃহৎ মিলন মেলায় পরিণত হবে । আয়োজক কমিটি , স্বপরিবারে মেলায় অংশগ্রহন করার জন্য সবাইকে বিশেষ ভাবে অনুরোধ করেছেন ।

আয়ারল্যান্ডে একুশে বই মেলার উদ্যোক্তা এবং বাংলাদেশ কমিউনিটির প্রাণপুরুষ সৈয়দ মোস্তাফিজুর  রহমান বই মেলাকে আয়ারল্যান্ডে প্রবাসী বাংলাদেশীদের ঈদ বোনাস হিসেবে দেখছেন ।

সকল প্রবাসী বাংলাদেশীদের উদ্যোগে  রাজধানী ডাবলিনে , আগামী ২১শে মে রোজ শনিবার , করোনা মহামারী পরবর্তী সময়ে   “ঈদ পূর্ণমিলন ও মিলনমেলা-২০২২” অনুষ্ঠান জাঁকজমকের সাথে উদযাপিত হতে যাচ্ছে । উক্ত অনুষ্ঠানে আয়োজক কমিটি আয়ারল্যান্ডের সকল বাংলাদেশীদের অংশগ্রহন করার জন্য বিনীত ভাবে অনুরোধ করেছেন । মেলায় শিশু / কিশোরদের জন্য বিভিন্ন ইভেন্টের পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও থাকবে । 

Facebook Comments Box