আশরাফ চৌধুরী শিবলি মনোনয়ন পেলেন ২০২৪ কাউন্সিলর নির্বাচনে

জনাব আশরাফ চৌধুরী শিবলি গলওয়ে সিটি ওয়েস্ট থেকে মনোনয়ন পান

0
612

গলওয়ে বাংলাদেশি কমিউনিটির জন্য সুসংবাদ বয়ে নিয়ে আসলেন সবার সুপরিচিত প্রিয় মুখ ও বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব জনাব আশরাফ চৌধুরী শিবলি। ২০২৪ কাউন্সিল নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে আয়ারল্যান্ডের একটি বৃহৎ রাজনৈতিক দল Fine Gael থেকে মনোনয়ন পেলেন জনাব শিবলি।

জনাব আশরাফ চৌধুরী শিবলি গলওয়ে সিটি ওয়েস্ট থেকে মনোনয়ন পান। Fine Gael থেকে তাঁর সাথে যৌথভাবে মনোনয়ন পেলেন গতবারের কাউন্সিলর Cllr Clodagh Higgins.

Connacht ডিভিশনের পত্রিকা Connacht Tribune জনাব শিবলির মনোনয়নকে ঠিক এইভাবে উপস্থাপন করে, ”This is a historic first as he is the first member of the Bangladeshi community to stand for Fine Gael in Galway City’’.

জনাব আশারাফ চৌধুরী বলেন, ”আমি মনোনীত প্রার্থীর মধ্যে আমার নাম দেখে যতটা না পুলকিত হয়েছি, তার থেকে বেশি আনন্দিত হয়েছে বাংলাদেশি হিসেবে আমাকে উত্থাপন করাতে’’।

তিনি বলেন, ”মনোনয়ন পেয়ে তিনি সত্যিই আনন্দিত, তবে এ কৃতিত্ব আমার একার নয় সবার এবং আগামী নির্বাচনের লড়াইও আমার একার নয়। এ লড়াই বাংলাদেশি কমিউনিটির সবার, সবার সহযোগিতা ছাড়া আমার এ পথ সফলতার আলো দেখবে না। আমি এ সফলতা কখনো কখনো আমার একার মনে করিনা, আমি মনে করি এ সফলতার আমার বাংলাদেশি কমিউনিটির’’।

আগামী নির্বাচনে তিনি গলওয়ে কমিউনিটি এবং আয়ারল্যান্ডে অবস্থিত সকল বাংলাদেশিদের কাছ থেকে দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করেন।

গলওয়ের অন্যান্য মনোনীত প্রার্থীদের মাঝে জনাব শিবলি

রাজনীতিতে আসার অনুপ্রেরণা কোথা থেকে পান, এ প্রশ্নের জবাবে জনাব শিবলি জানান, ‘‘২০১৬ সালে তিনি একবার আয়ারল্যান্ডের বাহিরে চলে যান এবং প্রায় ৩ মাস পর আবার ফিরে আসেন, এয়ারপোর্টে অবতরণ করার পর তাঁর মেয়ে উচ্ছ্বসিত কণ্ঠে বলে উঠে আমার দেশে ফিরে আসলাম। তখন আমার মনে হল আমি হয়ত এদেশে অভিবাসী কিন্তু আমার সন্তানরা তো নয়। এটা তাদের দেশ, সুতরাং তাদের জন্য একটি সুন্দর পথ তৈরি করে দেয়া আমাদেরই দায়িত্ব। তখন থেকে আয়ারল্যান্ডে কিছু করার বাসনা জাগ্রত হয় এবং কমিউনিটিতে সক্রিয় হওয়া শুরু করি”।

তিনি আরও জানান, ”এরপর আমি চিন্তা করলাম, কমিউনিটির মধ্যে ছোট পরিসরে থেকে বৃহৎ কিছু করা সম্ভব নয়। বৃহৎ কিছু করতে হলে লোকাল পলিটিক্সের বিকল্প নেই। এরপর ২০১৯ সালে Fine Gael এর একজন কাউন্সিলর এর সাথে পরিচয় এবং সে ই আমাকে পথ দেখিয়ে এখান পর্যন্ত নিয়ে আসে’’।

অনুপ্রেরণা হিসেবে লিমেরিকের সাবেক ডেপুটি মেয়র ও বর্তমান কাউন্সিলর ও সিটি মেয়র আজাদ তালুকদারের নাম উল্লেখ্ করেন। তিনি বলেন, ”জনাব আজাদ তালুকদার আমাদের জন্য অনুপ্রেরণা ও পথপ্রদর্শক। উনার কর্ম ও সফলতা আমাকে অনুপ্রেরণা ও শিক্ষা প্রদান করে। বিভিন্ন বিষয়ে আমি আজাদ ভাই এর সাথে পরামর্শ করি এবং তিনি আমাকে সবসময় সঠিক পরামর্শ প্রদান করতে চেষ্টা করেন’’।

জনাব শিবলিও নির্বাচিত হয়ে পথ প্রদর্শক হয়ে থাকতে চান। তিনি চান ভবিষ্যৎ প্রজন্ম তিনি ও তাঁর মতদের পথ অনুসরণ করে আরও দূরে এগিয়ে যেতে পারে। যাদের কল্যাণে সমৃদ্ধ হবে কমিউনিটি এবং সুনাম ছড়িয়ে যাবে বাংলাদেশি কমিউনিটির ও বাংলাদেশের।

কে এই আশরাফ চৌধুরী শিবলি

চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাই থানার মিঠানালা গ্রামের মিয়া বাড়িতে জন্ম ও বেড়ে উঠা। মিঠানলা হাই স্কুল থেকে মাধ্যমিক শেষ করে, উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন নিজামপুর কলেজ থেকে। এরপর দেশের নামকরা বিদ্যাপীঠ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে থেকে স্ট্যাটিসটিক্স থেকে বি এস সি অনার্স ও এম এস সি সফলতার সাথে সম্পন্ন করেন। এরপর ২০০৩ সালে পাড়ি জমান আয়ারল্যান্ডে।

আয়ারল্যান্ডের মাটিতে পা রাখার পর থেকেই অবস্থান করেন গলওয়েতে। পরিবার পরিজন নিয়ে এই গলওয়েতেই বাকি জীবনের পথচলা। দুই সন্তানের গর্বিত বাবা তিনি। তাঁর ১৩ বছর বয়স্ক কন্যা সন্তান ও ৮ বছর বয়স্ক পুত্র সন্তান নিয়ে সুখী পরিবার। স্ত্রী কন্যা সন্তান এর বাহিরে সম্পূর্ণ গলওয়ে বাংলাদেশি কমিউনিটিকে তিনি নিজ পরিবারই মনে করেন।

পরিশিষ্ট

জনাব আশরাফ চৌধুরী শিবলি তো মনোনয়ন পেলেন। তিনি তাঁর যোগ্যতার সাক্ষর প্রমাণ করেই এবং তাঁর দলের কাছে আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করেই ছিনিয়ে এনেছেন মনোনয়ন। এবার বাকি কাজ তাঁর একার নয়। জনাব আশরাফ চৌধুরী শিবলি এখন শুধু একজন ব্যক্তি নন। সম্পূর্ন বাংলাদেশি কমিউনিটিই জনাব আশরাফ চৌধুরী শিবলি।

আগামী নির্বাচনে জনাব শিবলির জয় মানে সম্পূর্ণ কমিউনিটির জয়, পরাজয় মানে কমিউনিটির পরাজয়। জনাব শিবলি তাঁর দায়িত্ব পালন করেছেন, এবার আসুন আমরা আমাদের দায়িত্ব পালন করি।

জয়ের আরেকটি বরমাল্য পরিধান করুক বাংলাদেশি কমিউনিটি আয়ারল্যান্ড।

Facebook Comments Box