আর মাত্র দু’দিন পর রবিবার অনুষ্ঠিত হবে বহুল প্রতিক্ষীত প্রানের মেলা “২১শে বই মেলা ২০২২”

0
236

আর মাত্র দুই দিন পর ১৫ই মে রবিবার ২০২২ ইং আয়ারল‌্যান্ডের ডাবলিনের ডাবলিন সিটি ইউনিভার্সিটিতে (DCU) তে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বহুল প্রতিক্ষীত প্রানের মেলা “২১ শে বই মেলা ২০২২”। বইমেলা হলো মানুষের মিলনমেলা। ব্যস্ত নাগরিক জীবনের একঘেঁয়েমি দূর করে বইমেলা এনে দেয় প্রশান্তি। বড়দের সাথে সাথে ছোটরাও বইমেলাকে দারুণভাবে উপভোগ করে।

উল্লেখ‌্য ২০২০ সালে আয়ারল‌্যান্ডের ডাবলিনে অবস্থিত (DCU) ডাবলিন সিটি ইউনিভার্সিটিতে সর্বপ্রথম “২১শে বই মেলা” অনুষ্ঠিত হয়। পরবর্তি বছর ২০২১ সালে করোনা মহামারীর জন‌্য মেলাটি আয়োজন করা সম্ভব হয়নি।


এই বছর ডাবলিন শহরের মাননীয় মেয়র Alison Gilliland, আগামী ১৫ই মে রবিবার ২১শে বই মেলা ২০২২ এর আমন্ত্রন গ্রহন করেছেন এবং মেলার প্রধান অতিথির আসন অলংকৃত করার সম্মতি প্রদান করেছেন। ২১শে বই মেলার আয়োজক কমিটি মেয়রের আগমন উপলক্ষে আনন্দিত।

২১শে বই মেলা আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্ভোধন করবেন বাংলাদেশী কমিউনিটির গর্ব আমাদের সবার প্রিয় ও শ্রদ্ধেয় এমিরিটাস প্রফেসর জনাব এম এস জে হাসমি। DCU তে মনোরম পরিবেশে বই মেলা আয়োজনে প্রফেসর হাসমী সহযোগীতা করে আসছেন এবং তিনি বই মেলার আয়োজক কমিটির একজন একনিষ্ঠ অভিভাবক।

আয়োজক কমিটি মনে করে এখন বাংলাদেশী কমিউনিটির দায়িত্ব এই বই মেলাকে সার্থক ও সাফল‌্যমন্ডিত করে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া।

এরই মধ‌্যে আয়োজক কমিটির পক্ষ থেকে বাংলাদেশী কমিউনিটির সবাইকে ১৫ই মে রবিবার ২১শে বই মেলা ২০২২ এর আমন্ত্রন হয়েছে।

এবারের মেলায় মূল অনুষ্ঠানের সাথে বেশ কিছু নতুন ইভেন্ট থাকবে বলে আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়,

২১শে বই মেলার বিশেষ আকর্ষনের মধ‌্যে থাকছে কবি ও লেখকদের জন‌্য বিশেষ সেমিনার। আয়ারল‌্যান্ডে বসবাসরত বাংলাদেশী কবি সাহিত‌্যিক ও লেখকগন মেলাতে উপস্থিত হয়ে মেলাকে আলোকিত করবেন। নর্দান আয়ারল‌্যান্ড প্রবাসী লেখক ও কবি মেহেদী হাসান থাকছেন তার বই নিয়ে নিজের বুক ষ্টলে। আরও থাকছে আয়ারল‌্যান্ড প্রবাসী কবি কামরুন নাহার রুনু’ র কবিতার বই নিয়ে “অষ্টম গ্রন্থ ” নামে একটি বুক ষ্টল।

এইবছর মেলায় বিশেষ আকর্ষন হিসেবে আয়ারল‌্যান্ডে বসবাসরত বাংলাদেশী চিত্র শিল্পীদের আকা্ঁ চিত্রকর্মের চিত্র-প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। এই চিত্র প্রদর্শনীতে গুনী চিত্রশিল্পী জেবুন নাহার অনুর চিত্রকর্ম প্রদর্শিত হবে।

এছাড়াও মেলার মূল আকর্ষন বইয়ের ষ্টল সাজিয়ে আমন্ত্রিত অতিথীদের নিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে “২১শে বই মেলা ২০২২” শুরু হবে সকাল ১১টায় এবং দিনভর মেলা চলবে সন্ধ‌্যা পর্যন্ত।

থাকছে শিশু কিশোরদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযগিতা।
ছোট্ট সোনামণিরা যারা বইমেলায় চিত্রাঙ্কন এবং লিখা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে তাদের জন্য সুন্দর মেডেল এবং সার্টিফিকেট পুরস্কার হিসেবে থাকবে।

চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতার সময়ঃ দুপুর ১টা থেকে ২টা। দুপুর ১২ঃ৩০ এর মধ্যে অবশ্যই উপস্থিত থাকতে হবে রেজিস্ট্রেশন এর জন্য। দুপুর ১ টার পর রেজিষ্ট্রেশন নেয়া হবেনা।

কিশোর কিশরীদের জন‌্য থাকছে বিষয় ভিত্তিক প্রবন্ধ রচনা প্রতিযোগীতা। এই বছর প্রতিযোগিতার বিষয় রাখা হয়েছেঃ “বাংলাদেশ” (বাংলাদেশের প্রকৃতি, ইতিহাস, নদী, দর্শনীয় স্থান সহ যেকোন কিছুই হতে পারে) আমরা চাই ওরা আনন্দ নিয়ে, ভালোবেসে বাংলাদেশ নিয়ে লিখুক।

রচনা প্রতিযোগীতার সময়ঃ দুপুর ২ টা থেকে ৩ টা। দুপুর ১ঃ৩০ এর মধ্যে অবশ্যই উপস্থিত থাকতে হবে। দুপুর ২ টার পর রেজিষ্ট্রেশন নেয়া হবেনা।

আয়োজকন আশা করছেন সকল অভিভাবকগন তাদেরদের ছোট্ট সোনামণিদের কে রেজিষ্ট্রেশন শুরুর আগেই অনুষ্ঠানে নিয়ে আসবেন এবং তারা সুন্দর একটি সময় উপহার দিতে পারবেন ইন শা আল্লাহ।

বিকেল ৪টায় শুরু হবে ২১শে বই মেলার বিশেষ আকর্ষন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে থাকছে কবিতা আবৃত্তি এবং বাংলাদেশী কমিউনিটির পরিচিত শিল্পীদের গাওয়া দেশের গান, আরও থাকছে ছোট্ট বন্ধুদের পরিবেশনায় নৃত‌্য অনুষ্ঠান।

মেলায় পর্যাপ্ত খাবারের ষ্টল থাকবে বলে আয়োজকগন জানিয়েছেন। থাকছে পিঠার ষ্টল, মিষ্টির দোকান, প‌্যাকেট খাবার, চটপটির ষ্টল, চা-কফির আয়োজন, ঐতিহ‌্যবাহী পান্তা-ইলিশের দোকান এবং আরও থাকছে দেশীয় রকমারী কাপর ও পোশাকের বিপণি।

বই মানুষের পরম বন্ধু, মানব সভ্যতার অন্যতম প্রাণসভা। বই অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যতের মাঝে তৈরি করে সেতুবন্ধন। বই সত্যের পথে, ন্যায়ের পথে পরিচালিত করে মানুষকে বিশুদ্ধ করে তোলে। ম্যাক্সিম গোর্কি বলেছেন- “আমার মধ্যে উত্তম বলে যদি কিছু থাকে তার জন্যে আমি বইয়ের কাছে ঋণী।” মানুষ জ্ঞানতৃষ্ণা নিবারণের জন্য বইমেলায় ছুটে যায়। বইমেলায় প্রতিদিনের ব্যস্ততা ভুলে মানুষ আনন্দ স্রোতে অবগাহন করে। একই সাথে বইমেলার আরও একটি উদ্দেশ্য হলো বইকেনায় মানুষকে আগ্রহী করে তোলা। আয়োজকগন আশা করছেন এবারের বই মেলায় সারা আয়ারল‌্যান্ড থেকে বিপুল সংখ‌্যক লোকের সমাগম ঘটবে। সবাইকে মেলায় আমন্ত্রন জানিয়ে মেলাকে সফল করতে সকলের প্রতি সহযোগীতার আহবান জানিয়েছেন আয়োজকগন।

Facebook Comments Box