আয়ারল্যান্ডে ব্যাংক ব্রাঞ্চ বন্ধের হিড়িক – কিন্তু কেন?

0
276

আয়ারল্যান্ডে রিটেইল ব্যাংকগুলার ব্রাঞ্চ বন্ধের হিড়িক লেগেছে। একে একে বড় ব্যাংকগুলা তাদের কার্যক্রম ও ব্রাঞ্চ বন্ধের ঘোষণা দেয়।

ব্যাংক এর খরচ কমানো ও ব্যাংকগুলোতে গ্রাহকদের যাতায়ত কমার কারণেই মূলত তারা এই সিদ্ধান্ত নেয়া।

‘ব্যাংক অফ আয়ারল্যান্ড’ জানায় গত ২০১৭ থেকে ২০২০ পর্যন্ত ২৫% গ্রাহকদের ব্রাঞ্চে স্বশরীরে গমন কমে যায় এবং করোনা পেন্ডেমিকের ফলে ৫০% এরও বেশি গ্রাহক ব্যাংকের ব্রাঞ্চে গমন করা কমিয়ে দেয়।

কিছুদিন আগে ওলস্টার ব্যাংক তাদের আয়ারল্যান্ডের কার্যক্রম গুটিয়ে নেয়ার কথা জানায়। অন্যদিকে ‘ব্যাংক অফ আয়ারল্যান্ড’ এবং AIB ব্যাংক দেশের বিভিন্ন স্থানের অনেক ব্রাঞ্চ বন্ধ করে হাই স্ট্রিট ব্রাঞ্চ কমিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেয়।

তারই ফলশ্রুতিতে ‘ব্যাংক অফ আয়ারল্যান্ড’ তাদের ১০৩ টি ব্রাঞ্চ বন্ধের তালিকা প্রকাশ করে। বিকল্প হিসেবে তারা দেশের ৯০০ টি পোষ্ট অফিস ব্যাবহারের জন্য ‘আন পোষ্ট’ এর সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়। ২০২০ অর্থবছরে ‘ব্যাংক অফ আয়ারল্যান্ড’ €৩৭৪ মিলিয়ন ইয়োরো লস এর স্বীকার হয়।

অন্যদিকে আরেক ব্যাংকিং জায়ান্ট AIB ব্যাংকও দেশজুড়ে ৫০০ টি ব্রাঞ্চ বন্ধের সাথে তাদের ব্রাঞ্চও বন্ধের ঘোষণা জানায় এবং গ্রাহকদেরকে অবগত করে। দুইদিন পরে AIB ব্যাংকের বাৎসরিক ফাইনান্সিয়াল রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে। তাদের অর্ধ বাৎসরিক ইন্টেরিম রিপোর্টে প্রোফিট দারুণভাবে কমে যায়। ধারণা করা হচ্ছে ‘ব্যাংক অফ আয়ারল্যান্ড’ এর মত AIB ব্যাংকও লস এর স্বীকার হবে।

COVID এর কারণে অন্যান্য সেক্টরের মত ব্যাংকিং সেক্টরেও মারাত্মকভাবে প্রভাব ফেলেছে। ব্যাংক ব্রাঞ্চ বন্ধের ফলে হয়ত কিছু অপারেটিং খরচ কমাতে সক্ষম হবে।

ব্রাঞ্চ বন্ধের ফলে গ্রাহকরা হয়ত সাময়িকভাবে সমস্যায় পড়তে পারেন। কিন্তু বিকল্প হিসেবে পোস্ট অফিসের ব্যবহার এবং ডিজিটাল ব্যাংকিং এর সহায়তায় হয়ত সে সমস্যা ধীর্ঘায়িত হবেনা।

Facebook Comments Box